২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যশোরে ছয় নম্বর স্ত্রীর মামলা

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ ঝিকরগাছার মোবারকপুর গ্রামের খোরশেদ খানের বিরুদ্ধে যৌতুক দাবি, মারপিট ও জমি লিখে নেবার অভিযোগে মামলা করেছেন তার ষষ্ঠ স্ত্রী। একই সঙ্গে সহায়তার অভিযোগে আরও তিনজনকে আসামি করা হয়েছে। বুধবার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট প্রণব কুমার হুই আদালতে এ মামলা করেন আঞ্জুয়ারা বেগম। বিচারক অভিযোগটি আমলে নিয়ে সমন জারির নির্দেশ দিয়েছেন। আসামিরা হলেন, ঝিকরগাছার মোবারকপুর গ্রামের মৃত পাচু খানের ছেলে খোরশেদ খান, শওকতের ছেলে হুমায়ুন ও খোরশেদের ছেলে হাফিজুর রহমান ও মফিজুর রহমান।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, মণিরামপুর উপজেলার খানপুর গ্রামের নিছার আলী গাজীর মেয়ে আঞ্জুয়ারা বেগমকে ১৯৯০ সালের ১৩ মার্চ বিয়ে করে খোরশেদ খান। বিয়ের পর তিনি জানতে পারেন খোরশেদ খান তাকে বিয়ের আগে আরও পাঁচটি বিয়ে করেছেন। প্রত্যেক স্ত্রীকে নির্যাতন করে যৌতুক নিয়ে তালাক দেয় সে। এরপরও তিনি ভাগ্য মেনে নিয়ে সংসার করেন। তার দুটি সন্তান হয়। তার মধ্যে তাসলিমা নামে একটি মেয়ে জীবিত আছে। বিয়ের পর নির্যাতন করে এক লাখ টাকা যৌতুক আদায় করে। কিছুদিন যেতে না যেতে নির্যাতন শুরু করে। উপায় না পেয়ে হাট চান্দিনায় জমি বরাদ্দ নিয়ে হোটেল চালু করেন। ওই ব্যবসার অর্থে সন্তান নিয়ে জীবনযাপন করতেন। এরপরও খোরশেদ খান তার উপর নির্যাতন চালাতে থাকে। আবারও এক লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। টাকা কোথায় পাবো বললে তার উপর নির্যাতন শুরু করে খোরশেদসহ আসামিরা।