১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এবার রোমারিওর তীর ...

  • ২০১০ বিশ্বকাপের দুর্নীতি তদন্তের সিদ্ধান্ত

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সেপ ব্লাটারকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় কিছুতেই থামছে না। এবার তাকে ধুয়ে দিয়েছেন ব্রাজিলের সাবেক তারকা ফুটবলার ও বর্তমানে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে পরিচিত রোমারিও। ১৯৯৪ সালের বিশ্বকাপজয়ী এই স্ট্রাইকার মঙ্গলবার এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, ব্লাটার ও প্লাতিনি কেউই সৎ নন। রোমারিও বলেন, ফিফার দুর্নীতি প্রমাণিত। এখানে অসততার প্রধান ব্লাটার। আর প্লাতিনি এই স্কুলের ছাত্র। কাউকে দিয়েই ফিফায় স্বচ্ছতা ফেরানো সম্ভব নয়। সপ্তাহ দুই আগে এ দু’জনকে চোর হিসেবে আখ্যায়িত করেন দিয়াগো ম্যারাডোনা। ইতালির নেপোলির এক টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাতকারে ম্যারাডোনা ব্লাটার ও প্লাতিনি দু’জনকে মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ হিসেবে সম্বোধন করেন। জীবন্ত এই কিংবদন্তি বলেন, আমি সবকিছু থেকে বাইরে পড়ে আছি। কারণ কেউ একজন ব্লাটারকে বলেছেন আমার সব পথ বন্ধ করে দিতে। তবে আমি চোর নই। প্লাতিনিকে সঙ্গে নিয়ে ব্লাটার ফুটবলের অনেক ক্ষতি করেছে। তাদের একজন ফিফা ও আরেকজন উয়েফাকে নিয়ে নানা ছলচাতুরী করছে। তবে বাস্তবতা হচ্ছে তারা সব সময় পাশাপাশি থেকেছে। ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আরও বলেন, আসল কথা হচ্ছে, কিভাবে চুরি করতে হয় ব্লাটার প্লাতিনিকে তা শেখাতে পেরেছেন। এবার ব্রাজিলের রোমারিও ম্যারাডোনার মতো প্রায় অভিন্ন মতামত রেখেছেন। ২০১০ বিশ্বকাপের দুর্নীতি তদন্তের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার পুলিশ। পাঁচ বছর আগে আফ্রিকার প্রথম দেশ হিসেবে ফুটবলের সেরা আসর আয়োজনের সুযোগ পেয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে বিশ্বকাপের আয়োজক হতে দক্ষিণ আফ্রিকার দুজন ফুটবল কর্মকর্তা ফিফার কয়েকজন শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাকে ঘুষ দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে। দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধান বিরোধী দল এ বিষয়ে তদন্ত চালানোর দাবিতে সোচ্চার। তাদের দাবির প্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু করার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির পুলিশ। তদন্ত চালানো হবে দক্ষিণ আফ্রিকান ফুটবল এ্যাসোসিয়েশনের বর্তমান সভাপতি ড্যানি জর্ডান ও তার পূর্বসূরি মোলেফি অলিফান্তের বিরুদ্ধে। ২০১০ বিশ্বকাপ আয়োজনের সময় দক্ষিণ আফ্রিকান ফুটবলের প্রধান ছিলেন মোলেফি। আর বিশ্বকাপ আয়োজক কমিটির প্রধান ছিলেন জর্ডান। দক্ষিণ আফ্রিকার সংসদ সদস্য সলোমন মালাটসি বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেছেন, এক কোটি ডলার নিয়ে অস্বচ্ছতা থাকায় আমরা এই দুজনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ এনেছি। এই অর্থ দক্ষিণ আফ্রিকার ফুটবল উন্নয়নে ব্যয় করার কথা ছিল।