২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আওয়ামী লীগ নেতার ধাক্কায় গরম তেলের কড়াইয়ে পড়ে ঝলসে গেল কর্মীর শরীর

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ রাজশাহী নগরীর বুধপাড়া এলাকার স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতির বিরুদ্ধে নিজ দলের কর্মীকে মারপিটের পর হোটেলের গরম তেলের কড়াইয়ে ফেলে ঝলসে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। গরম কড়াইয়ে ফুটন্ত তেলে সাচ্চু হোসেন (৪০) নামের আ’লীগ কর্মীর শরীর ঝলসে গেছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকের এ ঘটনায় গুরুতর দগ্ধ সাচ্চুকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি এখন হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ঝলাসানো শরীর নিয়ে যন্ত্রণায় ছটফট করছেন। রামেক হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সাচ্চুর অবস্থা আশঙ্কামুক্ত হলেও গরম তেলে তার কোমর থেকে উপরের দিকে অনেকাংশ পুড়ে গেছে। তার চিকিৎসা চলছে।

এদিকে ঘটনার পর থেকে স্থানীয় ৩০ নম্বর ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের ব্যক্তিগত সহকারী রাব্বেল হোসেন পলাতক রয়েছেন। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

আহত সাচ্চুর আত্মীয়রা জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে বুধপাড়া মোড়ের একটি খাবার হোটেলের সামনে আড্ডা দিচ্ছিলেন স্থানীয় আ’লীগের নেতাকর্মীরা। এসময় ৩০ নম্বর ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি ও রাবি উপাচার্যের ব্যক্তিগত সহকারী রাব্বেল হোসেনের সঙ্গে পূর্ব বিরোধের জের ধরে আ’লীগ কর্মী সাজু হোসেনের কথা কাটাকাটি শুরু হয়। এরই জের ধরে রাব্বেল উত্তেজিত হয়ে সাচ্চুকে মারপিট করতে থাকেন। একপর্যায়ে সাচ্চুকে ধাক্কা মেরে হোটেলের কড়াইয়ের গরম তেলের মধ্যে ফেলে দেন রাব্বেল।

এতে সাচ্চুর শরীরের অনেকাংশ ঝলসে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন সাচ্চুকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করেন। রামেক হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সাচ্চুর অবস্থা আশঙ্কামুক্ত। তার কোমর থেকে উপরের দিকের বেশকিছু অংশ পুড়ে গেছে।

এদিকে এ ঘটনায় এলাকায় চরম ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। জনরোষ থেকে বাঁচতে আ’লীগ নেতা রাব্বেল গা-ঢাকা দিয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা। তবে বিষয়টি সম্পর্কে কিছুই জানেন না বলে দাবি করেন নগরীর মতিহার থানার ওসি হুমায়ন কবির। তিনি বলেন, এ রকম কোন ঘটনার খবর থানায় নেই। তবে থানায় কেউ অভিযোগ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। বুধবার দুপুর পর্যন্ত এ বিষয়ে থানায় কোন অভিযোগ হয়নি।