২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চরফ্যাশন উপজেলা ছাত্রদল সভাপতিকে পিটিয়ে হত্যা

চরফ্যাশন উপজেলা ছাত্রদল সভাপতিকে পিটিয়ে হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা, চরফ্যাশন, ভোলা॥ ভোলার চরফ্যাশন উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি আবদুর রাজ্জাক (৩৫) কে পিটিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার রাত দেড়টার সময় উপজেলার শশীভূষণ থানার চেয়ারম্যান বাজারের বেড়ীবাঁধের উপর এ ঘটনা ঘটে। নিহত রাজ্জাক উপজেলার জিন্নাগড় গ্রামের মো.হোসেনের ছেলে।

উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন আলমগীর মালতিয়া জানান, উপজেলা ছাত্রদল সভাপতি আ. রাজ্জাক শুক্রবার ঈদের দিন রাতে হাজারী গঞ্জ গ্রামের এক বাসায় দাওয়াত খেয়ে হাজারীগঞ্জ ইউনিয়ন যুবদল সাংগঠনিক সম্পাদক জহির ও ছাত্রদল নেতা কামালসহ মোটর সাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে চেয়ারম্যান বাজার বেড়ীবাঁধের উপর একদল সন্ত্রাসী পথরোধ করে তাদের উপর হামলা চালায়। এসময় কামাল ও জহির পালিয়ে প্রাণ রক্ষা করে। পরে স্থানীয়রা রাজ্জাককে উদ্ধার করে চরফ্যাশন হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ভোলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। ভোলা হাসপাতালে নেয়া হলে শনিবার ভোর ৫ টায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

লাশের ময়না তদন্ত শেষে ওই দিন শনিবার বিকেলে ভোলা বিএনপির অফিসের সামনে প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় জেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এসময় তারা নিহত আবদুর রাজ্জাকের উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা, ক্ষোভ প্রকাশ করে নেতারা ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন।

রাত পৌনে ১১ টায় চরফ্যাশনের পশ্চিম জিন্নাহগড় এলাকার নুরিয়া মাদ্রাসার মাঠে দ্বিতীয় নামাযে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে রাজ্জাককে দাফন করা হয়। এসময় নিহতের বাবা হোসেন মিয়া ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাকদ মোতাহার হোসেন আলমগীর মালতিয়া বক্তব্য রাখেন।

শশীভূষণ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সামসুল আরেফিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, কে বা কাহারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। পরিবারের পক্ষ থেকে (রবিবার সকাল ১১ টা) এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে এ ঘটনায় পুলিশ একটি সাধারণ ডায়রি করেছেন।