২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

লন্ডনে খালেদা জিয়ার ঈদ শুভেচ্ছা অনুষ্ঠানে নেতাকর্মীদের ধাক্কাধাক্কি # সরকার দেশকে বৃহৎ কারাগারে পরিনত করেছে -খালেদা জিয়া

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ক্ষমতা ছাড়ার ভয়ে বর্তমান সরকার নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে চায় না বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। তিনি বলেন, গণতন্ত্রের স্বার্থেই আমরা নির্দলীয় সরকারের দাবিতে লড়াই করছি। এ লড়াইয়ে প্রবাসীদেরও ভুমিকা রাখতে হবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার বাংলাদেশকে ‘বৃহৎকারাগারে’ পরিণত করেছে। বিএনপির যত নেতাকর্মী আছে, সবার নামে মামলা দিয়েছে। দেশের মানুষকে মুক্ত করতে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে। পুরো জাতি এখন বর্তমান সরকারের কাছ থেকে মুক্তির অপেক্ষায়। ঈদের দিন ( বৃহস্পতিবার ) স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় লন্ডনের লন্ডনের ফেয়ারলপ ওয়াটার পার্ক অডিটোরিয়ামে প্রবাসী দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।

এদিকে লন্ডনে প্রবাসীদের সঙ্গে খালেদা জিয়ার শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে একদিকে অডিটোরিয়ামে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে বেশি লোকের উপস্থিতি এবং অপরদিকে খালেদা জিয়ার হাতে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো ও ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে পরষ্পর বিরোধী নেতাকর্মীরা ধাক্কাধাক্কিসহ চরম বিশৃংখলায় লিপ্ত হয়। এ সময় খালেদা জিয়ার ছেলে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তার স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমানও অনুষ্ঠানমঞ্চে উপস্থিত ছিলেন। ২৫ মিনিটব্যাপী খালেদা জিয়ার বক্তব্য চলাকালে নেতাকর্মীদের হৈ চৈ আর চিৎকার চেচামেচি চলতে থাকে। এক পর্যায়ে খালেদা জিয়া দলের নেতাকর্মীদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে যুক্তরাজ্যের সভ্য পরিবেশের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, তারা যেন শান্তিশৃংখলা বজায় রাখার প্রয়োজন বোঝেন।

ক্ষমতায় গেলে দেশে যুক্তরাজ্যের মতো গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার ইচ্ছার কথা জানিয়ে খালেদা জিয়া বলেন, আমরা সবাইকে নিয়ে ঐক্যের রাজনীতি করতে চাই। কিন্তু আওয়ামী লীগ তা চায় না। দেশের মানুষ ঠিক মত ঘুমাতে পারে না। দেশে কোনো মৌলিক অধিকার নেই, মানবাধিকার নেই, আইনের শাসন নেই, গণতন্ত্র নেই। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ কিছুতেই উনি গদি ছাড়বে না। তারা এতো লুটপাট ও খুনখারাবি করেছে যে ক্ষমতা ছাড়লে তারা পার পাবে না।

যুক্তরাজ্য বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কয়সর আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত ওই ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠান মঞ্চে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তার স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমান ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মহিদুর রহমান, যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক প্রমুখ।