২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সিদ্ধেশ্বরীতে গৃহকর্মীকে ধর্ষণের পর ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে হত্যা

  • মোহাম্মদপুরে শাশুড়িকে পিটিয়ে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঈদের তিনদিনের ছুটিতে রাজধানীর আইনশৃঙ্খলা আগের তুলনায় উন্নতি হয়েছে। চুরি, ডাকাতি ও দুর্বৃত্তায়নের ঘটনা ঘটেনি। তবে সিদ্ধেশ্বরী ও মোহাম্মদপুরে এক কিশোরী গৃহকর্মীসহ দুই নারীকে হত্যা করা হয়েছে। এদিকে যুগ্ম-সচিবের মেয়েসহ ৯ জনের অপমৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে তিন নারী আত্মহত্যা করেছে। দুই জন সড়ক দুর্ঘটনা ও দুই জন ট্রেনে কাটা পড়ে মৃত্যু হয়েছে। পৃথক স্থান থেকে আরও দুই লাশ উদ্ধার হয়েছে। অন্যদিকে কাফরুল, নিকুঞ্জ ও বাড্ডায় গ্যাস লাইনে অগ্নিকা-ে দগ্ধ হয়েছে ১১ জন। এছাড়া মোহাম্মদপুরে বাসে ডাকাতি হয়েছে। এ সময় দুর্বৃত্তরা তিনজনকে কুপিয়ে নগদ প্রায় দেড়লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। রবিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ঈদের পরের দিন শনিবার সকালে রাজধানীর রমনার সিদ্ধেশ্বরীতে এক চিকিৎসকের বাড়ির মিনা (১৩) নামে এক কিশোরী গৃহকর্মীকে ধর্ষণ করে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ওইদিন সকালে পুলিশ সিদ্ধেশ্বরী এলাকার জাহানারা এ্যাপার্টমেন্টের পেছনে ৪৭ নম্বর একটি নির্মাণাধীন ভবন থেকে তার লাশ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ মর্গে পাঠায়। পুলিশ ধারণা করছে, গৃহকর্মীকে ধর্ষণের পর তাকে ইট দিয়ে মাথা থেতলিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনার পর পুলিশ ওই নির্মাণাধীন এ্যাপার্টমেন্টের কেয়ার-টেকার ও নিরাপত্তা প্রহরীসহ ১০ জনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় গৃহকর্তা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাঃ জাকির আহমেদ বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে রমনা থানায় একটি মামলা করেছেন। রমনা থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, মিনা নামের ওই গৃহকর্মী ৪২/৪৩, সিদ্ধেশ্বরীর জাহানারা এ্যাপার্টমেন্টের ১৩/এফ নম্বর ফ্ল্যাটে চার বছর বয়স থেকে থাকত। ফ্ল্যাটের গৃহকর্তা ডাঃ জাকির আহমেদ ও মিনাকে চার বছর বয়সে কুড়িয়ে পেয়ে তার বাসায় থাকতে দিয়েছিলেন। এ সুবাদে শিশু মিনা তার বাসায় গৃহকর্মী হিসেবেই বড় হয়েছিল। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, মেয়েটিকে হত্যার আগে ধর্ষণের শিকার হয়েছিল। তবে ধর্ষণ ও হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য তার লাশের ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে আসল ঘটনা জানা যাবে।

শনিবার মোহাম্মদপুর বসিলা উত্তরা মুড়ানগর বড় মসজিদ এলাকায় ইয়াতুর নেছা (৫৮) নামে এক মহিলাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। খবর পেয়ে ওইদিন দুপুরে পুলিশ ওই এলাকার ২৯/১ নম্বর বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠায়। নিহতের স্বামীর নাম মৃত আইনুদ্দিন। গ্রামের বাড়ি গেবিন্দপুর জেলার শহরের কোচশহর গ্রামে। নিহতের মেয়ে গোলাপী জানায়, গত ৫ আগস্ট ভাই আনোয়ারের স্ত্রী শিরিন আক্তার তার দলবল নিয়ে মাকে ও আমাকে লাঠিসোঁটা দিয়ে মারধর করে। এক পর্যায়ে তারা এ ঘটনা কাউকে জানালে খুন করা হবে বলে হুমকি দেয়ে ভাইয়ের স্ত্রী শিরিন। পরে মা ইয়াতুর নেছাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজসহ কয়েকটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। পরে তাকে বসিলার বাসায় রেখে চিকিৎসা দেয়া হয়। বাসায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা শনিবার অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তাকে হাসপাতালে নিলে তার মৃত্যু হয়। নিহতের ছেলে আনোয়ার হোসেন জানান, পরে মা ইয়াতর নেছাকে বাসায় নিয়ে এসে দাফন-কাফনের ব্যবস্থা করা হয়। এই সংবাদ পেয়ে পুলিশ তাদের বাসাবো বাসা থেকে মা ইয়াতুরকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠায়। আনোয়ার হোসেন আরও জানান, ‘শিরিন এর আগে কয়েক বার বিয়ে করেছে। সে এক পুলিশ কর্মকর্তার প্রেমে পড়ে। এটি জানতে পেরে আমি শিরিন থেকে সরিয়ে পড়ার চেষ্টা করি। কিন্তু শিরিন এ পর্যন্ত আমার বিরুদ্ধে তাকে ২০টি মামলা দিয়েছে। এখন সে আমার মা ইয়াতুর নেছাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। আমি এর বিচার চাই।’

আত্মহত্যা তিন নারীর ॥ ঈদের পরের দিন শনিবার গভীররাতে রমনা থানাধীন ইস্কাটন গার্ডেন থেকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব আলম আরা রহমানের মেয়ে প্রমাথি রহমানের (২৫) লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই রাত ১টার দিকে পুলিশ ইস্কাটন গার্ডেন হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল সংলগ্ন ইস্কাটনের অফিসার্স কোয়ার্টারের তমাল ভবনের দ্বিতীয় তলা থেকে তার লাশটি উদ্ধার করা হয়।

এদিকে একইদিন সকালে দারুস সালাম থানা এলাকার টোলারবাগের একটি বাড়ি থেকে রহিমা বেগম (৪৫) নামে এক গৃহকর্মীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। দারুস সালাম থানার এসআই টিটু সরদার জানান, টোলারবাগের মকবুল হোসেনের বাড়িতে রহিমা বেগম গৃহকর্মী ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া উপজেলায়। পুলিশ ধারণা করছে, বিষয়টি আত্মহত্যা। এছাড়া ঈদের দিন শুক্রবার সকালে পুলিশ সবুজবাগ থানা এলাকার বাসাবোর ওহাব কলোনীর পাগলা গলির একটি বাড়ি থেকে তানিয়া আক্তার (২২) নামে এক নারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠায়।

সড়ক দুঘর্টনায় নিহত ২ জন ॥ ঈদের দিন শুক্রবার রাত ১১টার দিকে হাতিরঝিলের পানির পাম্পের সামনের সড়কে একটি মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাসুম ইসলাম (২৬) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। তেজগাঁও থানার পুলিশ জানায়, নিহত মাসুম এফডিসি এলাকার একটি মোটরসাইকেল শোরুমে কাজ করে। সেখান থেকে রাতে সে মোটরসাইকেল চালিয়ে তার রামপুরা বনশ্রী আবাসিক এলাকায় ফিরছিলেন।

ট্রেনে কাটা পড়ে দু’জন নিহত ॥ ঈদের পরের দিন শনিবার সকালে মহাখালী রেলক্রসিংয়ে ট্রেনের ধাক্কায় অজ্ঞাত (৩০) এক পথচারীর মৃত্যু হয়েছে। ঢাকা রেলওয়ে থানার এসআই রফিকুল ইসলাম জানান, শনিবার সকাল ১০টার সময় মহাখালী রেল লেবেল ক্রসিংয়ের কাছে রেললাইনের ওপর দিয়ে হাঁটার সময় পিছন দিক থেকে আসা একটি ট্রেনে কাটা পড়েন।

আরও দুই লাশ উদ্ধার ॥ ঈদের পরের দিন শনিবার রাজধানীর শাহবাগ থানা এলাকার পৃথক স্থান থেকে এক নারীসহ দু’জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিকী জানান, শনিবার সকালে শহীদ মিনার বিপরীত দিকে পরিসংখ্যান ভবনের সামনে থেকে অজ্ঞাত (৬০) এক বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করা হয়।

নির্বাচিত সংবাদ