২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সানচেজের হ্যাটট্রিকে আর্সেনালের বড় জয়

  • ইপিএলের শীর্ষে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, এবার টটেনহ্যামে বিধ্বস্ত ম্যানচেস্টার সিটি, লিভারপুলের দুর্দান্ত জয়, দুই ব্রাজিলিয়ানের কল্যাণে রক্ষা চেলসির

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অবশেষে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে ফিরেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। শনিবার রাতে ওল্ডট্রাফোর্ডে সপ্তম পর্বের ম্যাচে ম্যানইউ ৩-০ গোলে সান্ডারল্যান্ডকে হারিয়ে এই কৃতিত্ব দেখিয়েছে।

টানা দুই হারের স্বাদ পেয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। প্রথম পাঁচ ম্যাচেই জয় পাওয়া দলটি গত সপ্তাহে প্রথমবারের মতো হার মানে। পরশু রাতে সিটিকে গোলবন্যায় ডুবিয়েছে টটেনহ্যাম হটস্পার। স্পার্সরা নিজেদের মাঠে ৪-১ গোলে হারায় ম্যানসিটিকে। দুরাবস্থা থেকে বের হয়ে আসতে পারেনি চেলসিও। আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা এবার হারতে হারতে কোনরকমে ড্র করেছে নিউক্যাসল ইউনাইটেডের সঙ্গে। পিছিয়ে পড়া ব্লুজদের হয়ে দুটি গোলই করেন দুই ব্রাজিলিয়ান রামিরেস ও উইলিয়ান।

এ্যালেক্সিস সানচেজের দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকে ভর করে আর্সেনাল ৫-২ গোলে হারিয়েছে লিচেস্টার সিটিকে। উপভোগ্য ম্যাচে লিভারপুল ৩-২ গোলে হারায় এ্যাস্টন ভিলাকে। অন্য ম্যাচে সাউদাম্পটন ৩-১ গোলে সোয়ানসি সিটিকে ও স্টোক সিটি ২-১ গোলে হারায় বার্নমাউথকে। ওয়েস্টহ্যাম ও নরউইচের মধ্যকার ম্যাচটি অমীমাংসিত থাকে ২-২ গোলে। বর্তমানে সাত ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে এক নম্বরে ম্যানইউ। সমান ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় ম্যানসিটি ও ১৩ পয়েন্ট নিয়ে গোলগড়ে তৃতীয় ওয়েস্টহ্যাম ও চতুর্থ আর্সেনাল।

নিজেদের মাঠে ম্যানসিটিকে হারানোর লক্ষ্য নিয়েই ময়দানী লড়াইয়ে নেমেছিল টটেনহ্যাম। কিন্তু ২৫ মিনিটে এগিয়ে যায় অতিথি সিটি। মিডফিল্ডার ইয়াইয়া তোরের কাছ থেকে বল পেয়ে বুদ্ধিদীপ্ত শটে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন মিডফিল্ডার কেভিন ডি ব্রুইনে। গোল হজমের পরই যেন জেগে ওঠে স্পার্সরা। যার প্রমাণ হিসেবে পরবর্তীতে ম্যানসিটির জালে এক হালি গোল দিয়েছে টটেনহ্যাম। প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে সমতা ফেরায় স্বাগতিকরা। ডিয়েরের গোলে স্বস্তি নিয়ে বিরতিতে যায় টটেনহ্যাম। যে কারণে দ্বিতীয়ার্ধে বেশ উদ্দীপ্ত হয়েই খেলতে নামে স্বাগতিকরা। এতেই কপাল পুড়ে ম্যানসিটির। দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে বল গড়ানোর পাঁচ মিনিটেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন টটেনহ্যামের টবি এল্ডারউইরেল্ড। ৬১ মিনিটে ব্যবধান ৩-১ করেন হ্যারি কেন। বিপদ সীমানা থেকে দুর্দান্ত শটে গোল করেন তিনি। ৭৯ মিনিটে মিডফিল্ডার এরিক লামেলার গোলে ৪-১ ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে টটেনহ্যাম। ম্যানসিটি হেরে যাওয়ায় শীর্ষে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছে ম্যানইউ। নিজেদের মাঠে সান্ডারল্যান্ডের বিপক্ষে ৩-০ গোলে জিতেছে ইউনাইটেড। দলের জয়ে গোল করেন মেম্পিস ডিপাই, অধিনায়ক ওয়েন রুনি ও জুয়ান মাতা। প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে ম্যাচের প্রথম গোল করেন ডিপাই। ৪৬ মিনিটে ম্যাচের দ্বিতীয় গোল করেন রুনি। বিরতির পর ম্যাচের শেষ মিনিটে ইউনাইটেডকে তৃতীয় গোল এনে দেন মাতা। ম্যানইউর মতো সহজ জয়ের স্বাদ পেয়েছে আর্সেনাল। চিলিয়ান তারকা সানচেজের হ্যাটট্রিকে গানার্সরা ৫-২ গোলে হারায় লিচেস্টার সিটিকে। ৩৩, ৫৭ ও ৮১ মিনিটে গোল করে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন সাবেক বার্সিলোনা তারকা। আর্সেনালের হয়ে অপর দুটি গোল করেন থিও ওয়ালকট ও অলিভিয়ের জিরুড। পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় পড়েছিল লিভারপুল। এ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে ৬৭ মিনিট পর্যন্ত ৩-১ গোলে এগিয়ে থেকে ম্যাচ জয়ের পথেই হাঁটছিল দ্য রেডসরা। কিন্তু ৭১ মিনিটে গোল করে গেসটেডের দ্বিতীয় গোলে ম্যাচে উত্তেজনা ফেরায় ভিলা। শেষ পর্যন্ত অবশ্য জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে লিভারপুল।

নিউক্যাসল ইউনাইটেডের মাঠে এবারও জিততে পারেনি চেলসি। তবে দুই গোলে পিছিয়ে পড়েও দুই ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার রামিরেস ও উইলিয়ানের গোলে শেষ পর্যন্ত ২-২ ব্যবধানে ড্রয়ের স্বস্তিতে স্টামফোর্ড ব্রিজে ফিরেছে চ্যাম্পিয়নরা। ইপিএলে নিউক্যাসলের মাঠে দলটির বিপক্ষে গত তিনবারই হেরেছে দ্য ব্লুজরা। এই ড্রতে সাত ম্যাচ শেষে মাত্র ৮ পয়েন্ট নিয়ে চেলসির অবস্থান ১৫ নম্বরে।