২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মানবিক সমাজের অভাবে দেশে হত্যা ধর্ষণ ঘটছে ॥ নূর

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মানবিক সমাজ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। তিনি বলেন, মানবিক সমাজের চেতনার অভাবে দেশে হত্যা, ধর্ষণসহ নানা অন্যায়, অবিচার ও শোষণ নির্যাতনের ঘটনা সংঘটিত হয়ে থাকে। পরস্পরের প্রতি মানবিক হলে এসব অপকর্ম দূর করা সম্ভব।

রবিবার রাজধানীর বিদ্যানিকেতন স্কুল ও কলেজে গারো সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় সামাজিক অনুষ্ঠান ‘ওয়ানগালা’ উদ্যাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ঢাকা ওয়ানগালার নকমা হেস্টি রেমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা অধিবেশনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং, অধ্যাপক প্রশান্ত ত্রিপুরা, দৈনিক জনকণ্ঠের সিনিয়র রিপোর্টার নিখিল মানখিন, নয়ানগর খ্রীস্টান কো-অপারেটিভ ইউনিয়ন লিমিটেডের প্রেসিডেন্ট মার্টিন এস পেরেইরা প্রমুখ।

নওগাঁ, দিনাজপুর ও ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে একটি করে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী কালচারাল একাডেমি প্রতিষ্ঠার কাজ শীঘ্রই শুরু হবে জানিয়ে সংস্কৃতিমন্ত্রী, আদিবাসীদের জীবনমান উন্নয়নে বর্তমান সরকার বেশ আন্তরিক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতি ঘটেছে।

কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন বলেন, ক্ষুদ্র-বৃহৎ অর্থে নয়, দেশের সব জাতিগোষ্ঠীকেই মানুষ হিসেবে ভাবতে হবে। এমন মানসিকতা ধারণ করলে সবাই অভিন্ন সূত্রে এসে দাঁড়াবে।

ঢাকা ওয়ানগালার নকমা হেস্টি রেমা জনকণ্ঠকে জানান, ওয়ানগালা ধন্যবাদ বা কৃতজ্ঞতা প্রকাশের উৎসব। আদিবাসী গারোদের বিশ্বাস, শস্য দেবতা ‘মিশি সালজং’ পৃথিবীতে প্রথম ফসল দিয়েছিলেন এবং তিনি সারা বছর পরিমাণ মতো আলো-বাতাস, রোদ-বৃষ্টি দিয়ে ভাল শস্য ফলাতে সহায়তা করেন। তাই নতুন ফসল ঘরে তোলার সময় ‘মিশি সালজং’কে ধন্যবাদ জানাতে উৎসবের আয়োজন করে গারোরা। শস্য দেবতাকে উৎসর্গ না করে তারা কোন খাদ্য ভোগ করে না। ‘ওয়ানগালা’ আদিবাসী মান্দি বা গারোদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব।