২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সোনারগাঁও আ’লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ ॥ ভাংচুর, লুট

নিজস্ব সংবাদদাতা, সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ৩০ সেপ্টেম্বর ॥ সোনারগাঁওয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে টেঁটাবিদ্ধসহ উভয়পক্ষের কমপক্ষে অর্ধশত আহত হয়েছে। সংঘর্ষের সময় উভয়পক্ষের বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ করা হযেছে। বুধবার সকালে উপজেলার বারদী ইউনিয়নের নুনেরটেক গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান ও বারদী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জহিরুল হকের সমর্থক জাকারিয়া ও সোনারগাঁও উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য কামাল হোসেনের সমর্থক আব্দুল কাদের জিলানীর মধ্যে মঙ্গলবার বিকেলে নুনেরটেক এলাকায় তর্কাতর্কি হয়। এ সময় উভয় সমর্থকের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। জহিরুল হক ও কামাল হোসেন আগামী ইউপি নির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থী হওয়ায় এলাকায় প্রচারণা শুরু করেন। মঙ্গলবারের ঘটনার জের ও উভয় সমর্থক প্রচারণা চালনোর সময় বুধবার সকালে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র টেঁটা, বল্লম, রামদা, লাঠিসোঁটা নিয়ে একপক্ষ অন্যপক্ষের ওপর হামলা চালায়। শুরু হয় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া। এ সংঘর্ষ চলে ঘণ্টাব্যাপী। সোনারগাঁও থানার ওসি এসএম মঞ্জুর কাদের জানান, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষের ঘটনায় উভয়পক্ষই থানায় অভিযোগ দিয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আহত ২০

স্টাফ রিপোর্টার ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে দু’দিন ধরে সংঘর্ষ চলছে। থেমে থেমে সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। ভাংচুর ও লুপপাট চালানো হয়েছে বেশ কয়েকটি বাড়িঘরে। ঘটনার পর থেকে শরীফপুর পীরবাড়ির শত শত দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারগ্যাস ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। ঘটনা শুরু মঙ্গলবার রাতে। মাতাল অবস্থায় এক ব্যক্তিকে বকাঝকা নিয়ে রাতে শরীফপুর ও নাটাই মিন্দালিবাড়ির লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরবর্তীতে সামাজিকভাবে মীমাংসার উদ্যোগ নেয়া হয়। বুধবার সকালে ওই ঘটনার জের ধরেই দু’পক্ষের মধ্যে ভয়াবহ সংঘর্ষ হয়।