১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কলাপাড়ায় লালন বাহিনীর সশস্ত্র হামলা, তাণ্ডব

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ৩০ সেপ্টেম্বর ॥ লালন বাহিনীর সশস্ত্র হামলা ও নারকীয় তা-বে হানিফ খানের বসতঘরের নুনের বাটি পর্যন্ত রক্ষা হয়নি। ল-ভ- করে দেয়া হয়েছে বসতঘর, ঘরের আসবাবপত্রসহ মালামাল। ব্যাপক মারধর ও কোপের আঘাতে গুরুতর জখম হয়েছে হানিফ খানের স্ত্রী মুকুল বেগম (৪৫)। তাকে শঙ্কাজনক অবস্থায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। জখম হয়েছে হানিফ খান নিজেসহ ছেলে শওকত ও তার স্ত্রী। তাদের কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে নয়টা থেকে প্রায় পাঁচ ঘণ্টাব্যাপী এ হামলা-তা-ব চালানো হয়। কলাপাড়া থানার এসআই শহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অচেতন অবস্থায় মুকুল বেগমসহ অন্য আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছে। মিঠাগঞ্জ ইউনিয়নের আলীগঞ্জ গ্রামে এমন নারকীয় তা-ব ও সন্ত্রাসী হামলা চালায় লালন বাহিনী। ২০-২৫ জনের একটি দল এ হামলা-তা-বে অংশ নেয়। বুধবার দুপুরে কলাপাড়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মাইনুল হক ও অফিসার ইনচার্জ আজিজুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। হানিফ খান জানান, লালনের বিরুদ্ধে কলাপাড়া থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। তারা এলাকায় মাদকদ্রব্যের ব্যবসা করে আসছে।

বরগুনায় পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে মামলা

নিজস্ব সংবাদদাতা, বরগুনা, ৩০ সেপ্টেম্বর ॥ বরিশালের কোতোয়ালি থানায় চাকরিরত রয়েছেন পুলিশ সদস্য অরবিন্দু বিশ্বাস। তার বাড়ি বরগুনার বামনা উপজেলার উত্তর কাকচীড়া গ্রামে। তিনি বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে যুক্ত থাকায় গ্রামের সাধারণ মানুষের সঙ্গে শত্রুতা উদ্ধারের জন্য দেশের বিভিন্ন থানায় মামলা দিয়ে হয়রানির ভয়ভীতি দেখান। এরই সূত্র ধরে পার্থ প্রদীপ বিশ্বাস নামের একজনকে হুমকি দেয়ায় তিনি বাদী হয়ে অরবিন্দু বিশ্বাসকে আসামি করে বরগুনা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, জমিজমা বিষয়ক বিরোধের জের ধরে বাদী পার্থ প্রদীপ বিশ্বাস ও আসামি অরবিন্দু বিশ্বাসের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। বিরোধে নিজের ফায়দা লোটার জন্য পুলিশ বাহিনী দিয়ে পার্থ প্রদীপ বিশ্বাসকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করে আসছেন অরবিন্দু। চলতি বছরের ১৯ আগস্ট বুধবার বিকেলে আসামি অরবিন্দু বিশ্বাস পার্থ প্রদীপকে প্রাণনাশ ও মাদকসহ অস্ত্র মামলায় ফাঁসিয়ে হয়রানির হুমকি দেন। এ সময় লোকজন আশায় পার্থ প্রদীপ বেঁচে যান।

মামলার বাদী পার্থ প্রদীপ জানান, অরবিন্দু বিশ্বাসের বিরুদ্ধে মামলা না করে মীমাংসায় যাওয়ার চেষ্টা করেছি। কিন্তু তিনি পুলিশ বাহিনীতে কর্মরত বিধায় আমি কিছু বলতে পারিনি। ওর হাত থেকে বাঁচতেই আইনের আশ্রয় গ্রহণ করেছি। আমি বিচার চাই। মামালার আসামি অরবিন্দু বিশ্বাস এ প্রশ্নের জবাবে বলেন, ডিউটি শেষ করে আমি অনেক ক্লান্ত। এ বিষয়ে আপনার সঙ্গে পরে কথা বলব।

যশোরে ধর্ষণ মামলায় ছাত্র আটক

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ধর্ষণ মামলার আসামি এক কলেজছাত্রকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুরে বসুন্দিয়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই সোহরাব হোসনে তাকে আটক করেন। তার নাম রুহুল আমিন (১৯)। সে সদর উপজেলার জঙ্গলবাঁধাল গ্রামের শাহ আলম খানের ছেলে।

রাজশাহীতে ভবন মালিকের ওপর হামলা, আহত ৩

অসামাজিক ব্যবসায় বাধা

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ অসামাজিক ব্যবসার প্রতিবাদ করায় ভবনের নারী মালিককে লাঞ্ছিত করাসহ তার স্বামী ও অপর দুই ভাড়াটিয়াকে পিটিয়ে জখম করেছে আবাসিক হোটেলের মালিক ও তার লোকজন। মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে নগরীর লক্ষ্মীপুর এলাকায় অবস্থিত এমাজ প্লাজার সামনে হোটেল গ্যালাক্সির মালিক ও তার লোকজনের পিটুনিতে গুরুতর আহত তিনজনকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এরা হলেন- এমাজ প্লাজার মালিক সালমা পারভীনের স্বামী মামুনুর রশিদ, ভবনের ৭ম ও ৮ম তলার ভাড়াটিয়া মিলন মীর ও মনিরুল ইসলাম। হামলায় আহতদের মধ্যে বুধবার দুপুর পর্যন্ত মিলনের জ্ঞান ফেরেনি। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।