১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভারতে গরুর মাংস খাওয়ার গুজবে একজনকে পিটিয়ে হত্যা

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ ভারতে গরুর মাংস খাওয়ার গুজবে একজনকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। সোমবার রাতে রাজধানী নয়াদিল্লীর ৫০ কিলোমিটার দূরের দাদরী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম মোহাম্মদ আখলাখ। এ সময় তার ২২ বছরের ছেলেকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়।

এ ঘটনায় ৬ জনকে আটক করা হয়েছে। স্থানীয় মন্দির থেকে এই অভিযোগ তোলার পর আখলাখের বাড়িতে একদল উত্তেজিত জনতা হামলা চালায়। আর যে ব্যক্তি এই গুজব ছড়িয়েছে তাকেও খোঁজা হচ্ছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। নিহত আখলাখ পেশায় কৃষিশ্রমিক। খবর বিবিসি, এএফপি ও দ্যা ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস অনলাইনের।

স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা কিরণ সিং বলেন, আখলাখের পরিবার গরুর মাংস খেয়েছে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়লে সোমবার রাত দশটার দিকে শ’খানেক উত্তেজিত লোক বাড়িটিতে হামলা চালায়। পরে এই হত্যাকা-ের ঘটনা ঘটে। তিনি আরও বলেন, আমরা আখলাখের ঘরের ফ্রিজে রাখা মাংসের নমুনা নিয়ে পরীক্ষাগারে পাঠিয়েছি। পরীক্ষার পর বিষয়টি পরিষ্কার হওয়া যাবে। তিনি আরও বলেন, এ খবর ছড়িয়ে পড়লে পাশের গ্রামগুলোতে সংঘর্ষ, ভাংচুর এবং গোলাগুলি শুরু হয়। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে জানান তিনি। এ বিষয়ে নিহত আখলাখের মেয়ে সাজিদা বলেন, আমরা ফ্রিজে খাশির মাংস সংরক্ষণ করেছি। গরুর মাংস নয়। তিনি আরও বলেন, একদল উত্তেজিত জনতা আমাদের বাড়িতে ঢুকে দরজা ভেঙ্গে আমা বাবা এবং ভাইকে টেনেহিঁচড়ে ঘর থেকে বের করে আনে। পরে আমার বাবাকে কিলঘুষি এবং ইট দিয়ে মেরে হত্যা করে তারা। আর আমার ভাইকে মেরে আহত করা হয়। হিন্দু প্রধান ভারতে গরু জবাই একটি স্পর্শকাতর বিষয়। উত্তর প্রদেশের মতো কয়েকটি রাজ্যে গরু জবাই এবং বিক্রির ওপর কঠোর বিধি নিষেধ রয়েছে।