২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুলিশের সোর্সের বিরুদ্ধে তিতুমীর কলেজের ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর ভাটারা থানা পুলিশের সোর্স হিসেবে পরিচিত আরিফুল ইসলাম সবুজের (২৭) বিরুদ্ধে তিতুমীর কলেজের এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ওই ছাত্রী বুধবার দুপুরে দুঃসম্পর্কের এক আত্মীয়কে নিয়ে ঢাকা মেডিক্যালে চিকিৎসা নিতে আসেন। বর্তমানে ওই কলেজছাত্রী হাসপাতালের ২১২ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।

কুড়িল বিশ্বরোড কাজীবাড়ীর একটি বাসায় মঙ্গলবার রাতে ধর্ষণের ওই ঘটনার। বুধবার সকালে ওই ছাত্রী কৌশলে ওই বাসা থেকে বের হয়ে আসতে সক্ষম হন।

বনানীর টিবিগেট সংলগ্ন একটি ছাত্রী হোস্টেলে থেকে তিতুমীর কলেজে পড়াশোনা করতেন। ছয় মাস আগে আরিফুল ইসলাম সবুজ (২৭) নামে এক যুবকের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। পরবর্তী সময়ে তাদের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ঈদের আগে সে জানতে পারে সবুজ বিবাহিত। তার একটি মেয়েও আছে। এ নিয়ে সবুজের সঙ্গে তার ঝগড়া হয়।

তিনি আরও জানান, ঈদের ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরে এলে সবুজের সঙ্গে তার কথা হয়। এ সময় সবুজ জানায়, সে বিবাহিত কি না, তা তার বাসায় এসে দেখে যেতে। মঙ্গলবার দুপুর দেড়টায় কুড়িল বিশ্বরোড থেকে তাকে রিসিভ করে নিয়ে যায় সবুজের বন্ধু রাশেদুল ও আরেকজন। পরে তাকে কাজীবাড়ী এলাকার এক বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। ওই বাসায় সবুজের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সবুজ তাকে মারধর করে। রাতে সে জোর করে তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় তাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়া হয়। সে পুলিশের সোর্স। থানায় অভিযোগ দিলেও কোন লাভ হবে না।

কলেজছাত্রী জানান, সবুজ তাকে মেরে ফেলারও হুমকি দেয়। এ কারণে সারা রাত সে তার অত্যাচার মুখ বুজে সহ্য করে। বুধবার সকালে সে কৌশলে ওই বাসা থেকে পালিয়ে হোস্টেলে ফিরে আসে। পরে তার দুঃসম্পর্কের ভাই হৃদয়কে সঙ্গে নিয়ে ঢাকা মেডিক্যালে চিকিৎসার জন্য আসেন।