২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নবীনগরে ভাতিজার হাতে চাচি খুন

  • অন্যত্র ব্যবসায়ী ছাত্রসহ পাঁচ লাশ উদ্ধার

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ নবীনগরে ভাতিজার হাতে চাচি খুন হয়েছেন। এ ছাড়া বাগেরহাটে ব্যবসায়ী, নড়াইলে ছাত্র ও চালক এবং কিশোরগঞ্জে দুই চালকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। খবর স্টাফ রিপোর্টার, নিজস্ব সংবাদদাতা ও সংবাদদাতাদের-

নবীনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ॥ নবীনগর উপজেলার নাটঘর ইউনিয়নের কুড়িঘর গ্রামে বৃহস্পতিবার ভাতিজার হাতে চাচি খুন হয়েছেন। নিহতের নাম নিলুফা বেগম (৪৫), স্বামী কদর আলী। স্থানীয়রা জানায়, সম্পত্তি নিয়ে পারিবারিক কলহের জের ধরে কদর আলীর ভাই ও কাশেম মিয়ার পরিবারের মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে কাশেম মিয়ার ছেলে আক্তার ও সেন্টু মিলে চাচিকে লাঠি দিয়ে পেটালে মাথায় আঘাত পেয়ে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে। অপরদিকে গত ২৭ সেপ্টেম্বর নবীনগর উপজেলার কাইতলা উত্তর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামে টাকা লেনদেনের তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে আহত আবদুল বাতেন চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকার একটি প্রাইভেট হাসপাতালে মারা যান।

বাগেরহাট ॥ একদিন পর বাগেরহাট পৌরসভার প্রাক্তন কমিশনার ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী চিত্তরঞ্জন দামের (৭৯) মৃতদেহ উদ্ধার করেছে কোস্টগার্ড। বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে দিগরাজ কোস্টগার্ডের জেটি সংলগ্ন পশুর নদীর তীর থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত ব্যবসায়ীর বড় ছেলে অশীষ দাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বুধবার মংলা দ্বিগরাজ নৌঘাঁটিতে আটক ভারতীয় ট্রলারের মাছ নিলামে কিনতে গিয়ে রাত সাড়ে ৯টার দিকে পন্টুন থেকে পা পিছলে চিত্ত রঞ্জন দাম নদীতে পড়ে যান। এ সময় তার ছোট ছেলে তুষার দাম বাবাকে বাঁচাতে খরস্্েরাতা পশুর নদীতে লাফিয়ে পড়েও রক্ষা করতে পারেনি।

নড়াইল ॥ কালনা ফেরিঘাটের মধুমতি নদী থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রসহ দু’জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার রাত ১২টার দিকে লোহাগড়া উপজেলার পূর্বচরকালনা গ্রামের সুবজ শেখের লাশ উদ্ধার করা হয়। এর আগে মোবাইল ফোনে কথা বলার সময় কালনা ফেরির পন্টুন থেকে সন্ধ্যায় মধুমতি নদীতে পড়ে নিখোঁজ হন সুবজ। সবুজ লোহাগড়া পূর্বচরকালনা গ্রামের এনামুল শেখের ছেলে এবং ঢাকার একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে এলএলবির শিক্ষার্থী।

কিশোরগঞ্জ ॥ বাজিতপুরে অজ্ঞাত (৬০) পরিচয়ে এক রিকশাচালককে ও করিমগঞ্জে মঞ্জিল মিয়া (৫০) নামে এক অটোরিকশা চালককে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার গভীর রাতে তাদের হত্যা করে রাস্তার পাশে ফেলে যায় দুর্বৃত্তরা।

জামালপুরে মাদ্রাসা সুপারের কাণ্ড

নিজস্ব সংবাদদাতা, জামালপুর, ১ অক্টোবর ॥ বাড়তি পরীক্ষা ফি না দেয়ায় দাখিল ও জেডিসি নির্বাচনী পরীক্ষার্থীদের প্রখর রোদে এক ঘণ্টা দাঁড় করিয়ে রেখে শাস্তি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে পরীক্ষার্থীরা মাদ্রাসা মাঠে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে ।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বকশীগঞ্জ উপজেলার যদুরচর দাখিল মাদ্রাসায় দাখিল ও জেডিসি নির্বাচনী পরীক্ষা শুরু হয়। দাখিল পরীক্ষার্থী ৩৩ ও জেডিসি ১০১ পরীক্ষার্থী পরীক্ষা দিতে আসে। দাখিল পরীক্ষার ফি ৩৫০ টাকা ও জেডিসি পরীক্ষার্থীদের জন্য ২৫০ টাকা ফি নির্ধারণ করে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ।

তুলনামূলকভাবে নির্বাচনী পরীক্ষার ফি বেশি হওয়ায় পরীক্ষার্থীরা অতিরিক্ত ফি দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। এতে ওই মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত সুপার আওরঙ্গজেব ক্ষিপ্ত হয়ে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা বন্ধ করে দিয়ে মাদ্রাসা থেকে বের করে দেয়। ওই সময় পরীক্ষার্থীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এতে ওই মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত সুপার পরীক্ষার্থীদের মাদ্রাসা মাঠে ঘণ্টাব্যাপী রোদে দাঁড় করিয়ে রাখে।