২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বৈশ্বিক উষ্ণায়নে বড় ধরনের বন্যার ঝুঁকিতে নিউইয়র্ক

  • বিজ্ঞানীদের সমীক্ষা

বৈশ্বিক উষ্ণায়নের কারণে আরও ঘন ঘন ঝড় এবং সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে নিউইয়র্ক নগরী বন্যা হওয়ার বর্ধিত ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। ২০১২ সালে সুপারস্টর্ম স্যান্ডির সময় যেমনটি ঘটেছিল। বিজ্ঞানীরা এ কথা বলেছেন। খবর এএফপির।

গবেষকরা এক সমীক্ষায় জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর-পূর্ব উপকূলে প্রতি ২৫ বছর বা কাছাকাছি সময় অন্তর মহাঝড় বয়ে যেতে পারে। বিজ্ঞানীরা মানুষের তৎপরতার কারণে সৃষ্ট গ্রিন হাউস গ্যাস নিঃসরণজনিত বৈশ্বিক উষ্ণায়নকে এজন্য দায়ী করেছেন। সামুদ্রিক তলানি এবং কম্পিউটার মডেলের গভীর নিরীক্ষণ দ্বারা এই গবেষণা চালানো হয়। এগুলো গবেষকদের ৮৫০ থেকে ১৮শ’ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত উত্তর আটলান্টিকে হারিকেনের (প্রবল ঝড়) পৌনঃপুনিকতা এবং শক্তি পর্যবেক্ষণের সুযোগ করে দেয়। গবেষকরা অতঃপর ওই সব ফলাফলকে ১৯৭০ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত সময়কালের তথ্য-উপাত্তের সঙ্গে মিলিয়ে দেখেন। আমেরিকান একাডেমি অব সায়েন্সের প্রসিডিংসের (পিএনএএস) সর্বশেষ সংস্করণের সমীক্ষায় এ কথা বলা হয়। গবেষকরা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হন যে, ঝড়ের আকস্মিক গতিবেগ বৃদ্ধি কিংবা ঝড়ের কারণে পানির উচ্চতা বৃদ্ধি ছিল প্রায় এক হাজার বছর সময়কালের তুলনায় সাম্প্রতিক ৩০ বছর সময়সীমায় গড়পড়তা ১ দশমিক ২৪ মিটার বেশি। তারা বলেন, এটিই প্রাথমিকভাবে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধির ফল।

পানি পান করতে গিয়ে

প্রচ- তৃষ্ণায় কাতর হয়ে পানি পান করতে গিয়ে কলসিতে মুখ আটকে বিপত্তিতে পড়ে চিতাবাঘ। সেটি আর খুলতে পারেনি সে। মুখে কলসি নিয়ে অসহায়ভাবে ঘোরাফেরা করতে থাকে। পরে বন দফতরের কর্মীরা চিতাবাঘকে ট্রাঙ্কুয়ালাইজ করে কলসি খোলে। ঘটনাটি রাজস্থানের উদয়পুরের এক প্রত্যন্ত গ্রামে। -সংবাদ প্রতিদিন

সিরীয় কিশোরীর সম্মানে

সিরীয় কিশোরী প্রতিবন্ধী শরণার্থীর সম্মানে বিশেষ দৃশ্য চিত্রায়িত করেছে মার্কিন একটি সোপ অপেরা। নাওজাইন মোস্তফা নামে ১৬ বছর বয়সী ওই কিশোরী জানিয়েছে, সে খুবই খুশি ও কৃতজ্ঞ। কারণ এইচবিও’-এর ‘লাস্ট উইক টুনাইট’ অনুষ্ঠানের সঞ্চালক জন অলিভার তার স্বপ্ন সত্যি করেছে। তার প্রিয় সোপ অপেরা ডেস অব আওয়ার লাইভসের প্রিয় দুটি চরিত্র স্যামি ও ইজেকে পুনরায় একত্র করছে। নাওজাইন এই নাটক থেকেই শুদ্ধ ইংরেজী শিখেছে। সে সিরিয়া থেকে হুইলচেয়ারে করে জার্মানি পৌঁছে। -বিবিসি