২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কুন্দুজের মূল এলাকা পুনর্দখলের দাবি আফগান বাহিনীর

আফগানিস্তানের সরকারী বাহিনী পাল্টা বড় ধরনের হামলা চালিয়ে তিন দিন আগে তালেবানের দখল করে নেয়া উত্তরাঞ্চলীয় শহর কুন্দুজের মূল এলাকাগুলো পুনর্দখল করেছে। বৃহস্পতিবার ভোরে কয়েক ঘণ্টার অভিযানে এসব এলাকা সরকারী বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে আসে বলে দেশটির সরকারী কর্মকর্তারা দাবি করেছেন। খবর বিবিসি ও আলজাজিরার।

কুন্দুজ পুলিশপ্রধানের মুখপাত্র সৈয়দ সারোয়ার হুসেইনি বলেন, সামরিক বাহিনী গবর্নর, পুলিশপ্রধান ও গোয়েন্দা কার্যালয় পুনর্দখল করেছে এবং বহু তালেবান জঙ্গীর মরদেহ পড়ে রয়েছে। আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে শহরটি পুনর্দখলের দাবি করেছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাদিক সাদিকি টুইটারে বলেছেন, বিশেষ বাহিনী কুন্দুজের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে এবং তালেবান যোদ্ধাদের ওই এলাকা থেকে হটিয়ে দিয়েছে। অভিযানে অনেক তালেবান যোদ্ধা হতাহত হয়েছে। তবে তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ আফগান সরকারের এই দাবি প্রত্যাখ্যান করে বলেছেন, তালেবান যোদ্ধারা এখনও কুন্দুজ শহরের কেন্দ্রীয় অঞ্চলে সরকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াই চালাচ্ছে এবং শহরটির অধিকাংশ এলাকা এখনও তাদের নিয়ন্ত্রণ রয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা ও নিরাপত্তা সূত্রগুলো জানিয়েছে, তালেবানের নিয়ন্ত্রণে থাকা আবাসিক এলাকাগুলোতে ব্যাপক প্রতিরোধের মুখে পড়েছে সরকারী বাহিনী। কিছু এলাকায় সামরিক অভিযান ও সংঘর্ষ এখনও চলছে। ২০০১ সালে আফগানিস্তানের ক্ষমতা থেকে হটিয়ে দেয়ার পর সোমবার প্রথমবারের মতো একটি প্রাদেশিক রাজধানী দখল করে নেয় তালেবান যোদ্ধারা। তারপর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলার সহায়তায় আফগান বাহিনীগুলো দু’দিন ধরে শহরটি পুনর্দখলের চেষ্টা করছে। কুন্দুজের অস্থায়ী গবর্নর হামদুল্লাহ দানিশি টেলিফোনে বলেন, রাতে তালেবানের সঙ্গে তীব্র লড়াইয়ের পর আফগান নিরাপত্তা বাহিনীগুলো কুন্দুজ শহরের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করেছে। আমাদের নতুন বাহিনী আসার পর কুন্দুজ শহরের অভ্যন্তরে ব্যাপক অভিযান শুরু হয়। আর তা প্রতিরোধ করতে না পেরে তালেবান যোদ্ধারা পালিয়ে গেছে। শীঘ্রই এ বিষয়ে পূর্ণ প্রতিবেদন প্রকাশ করব আমরা।

নির্বাচিত সংবাদ