২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যুক্তরাষ্ট্রের সতর্কতা শিথিল, ইতালির রেড এ্যালার্ট প্রত্যাহার

  • সিজার তাভেলা হত্যাকাণ্ড

কূটনৈতিক রিপোর্টার ॥ ইতালির নাগরিক সিজার তাভেলা হত্যার ঘটনায় বাংলাদেশে বসবাসরত নাগরিকদের চলাফেরায় নিরাপত্তা সতর্কতা শিথিল করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া বাংলাদেশে নিরাপত্তা রেড এ্যালার্ট প্রত্যাহার করেছে ইতালি। শুক্রবার ঢাকার মার্কিন ও ইতালির দূতাবাস এ তথ্য জানায়।

ঢাকার মার্কিন দূতাবাস থেকে নিরাপত্তাসংক্রান্ত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দেশটির নাগরিকদের নিজ নিজ জায়গায় থাকতে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত বলবত থাকা আদেশ আপাতত শিথিল করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ঢাকা দূতাবাস। তবে শহরে চলাচলের সময় দূতাবাসের কর্মীদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকে ঢাকার মার্কিন দূতাবাস ও দূতাবাসের কনস্যুলার সেবা চালু হয়েছে বলেও জানানো হয়।

এর আগে সোমবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এক সতর্ক বার্তায় পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে তাদের আঞ্চলিক নিরাপত্তা দফতরের অনুমতি ছাড়া বাংলাদেশে বড় ধরনের জমায়েত বা আন্তর্জাতিক হোটেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ থেকে বিরত থাকতে বলেছিল। বাংলাদেশে অবস্থানরত যুক্তরাষ্ট্রের অন্য নাগরিকদেরও একই পরামর্শ দিয়ে রেস্তরাঁ, হোটেলসহ সব জনসমাগম স্থলে চলাফেরার ক্ষেত্রে উচ্চমাত্রায় সতর্কতা অবলম্বন করতে বলেছিল মার্কিন দূতাবাস।

এদিকে ইতালির দূতাবাস থেকে বাংলাদেশে তাদের নাগরিকদের নিরাপত্তাসংক্রান্ত রেড এ্যালার্ট উঠিয়ে নেয়া হয়েছে। ইতালির নাগরিক সিজার তাভেলা হত্যার প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার বাংলাদেশে অবস্থানরত ইতালির নাগরিকদের সতর্কতার সঙ্গে চলাচলের জন্য রেড এ্যালার্ট দিয়েছিল দেশটি। এতে বাংলাদেশে অবস্থানরত দেশটির নাগরিকদের হোটেল, ক্লাব, ইন্টারন্যাশনাল স্কুল, বিদেশী নাগরিকদের সমাগম হয়Ñ এমন স্থানে যাওয়া থেকে বিরত থাকতে বলা হয়। তবে শুক্রবার সেই নিরাপত্তাসংক্রান্ত রেড এ্যালার্ট উঠিয়ে নেয় ইতালি।

সোমবার গুলশান-২ এর ৯০ নম্বর সড়কে সিজার তাভেলাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। তিনি আইসিসিও কো-অপারেশন নামে একটি আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রুফ (প্রফিটেবল অপরচ্যুনিটিজ ফর ফুড সিকিউরিটি) কর্মসূচীর প্রকল্প ব্যবস্থাপক ছিলেন। আন্তর্জাতিক জঙ্গী সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) এ হামলার দায় স্বীকার করেছে বলে জঙ্গী হুমকি পর্যবেক্ষণকারী ওয়েবসাইট ‘সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ’ জানিয়েছে। তবে আইএসের এ দাবির সত্যতা যাচাই হয়নি বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। আর সিজার তাভেলাকে হত্যার পর অস্ট্রেলিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ইতালি নিজ নিজ নাগরিকদের নিরাপত্তাসংক্রান্ত সতর্কবার্তা জারি করে।

সিজার তাভেলা হত্যার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে সঠিক তদন্ত ও সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। এছাড়া এ হত্যার ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট গিবসন। তবে ঢাকার ইতালির দূতাবাস ও নেদারল্যান্ডসভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা আইসিসিও কো-অপারেশন বলেছে, পুলিশী তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাভেলা হত্যার বিষয়ে এখনই কোন মন্তব্য করবে না তারা।

নির্বাচিত সংবাদ