২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাগেরহাটে মাদকসেবীদের হামলা ॥ বাড়িঘর ভাংচুর, আহত ৭

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ মধ্যযুগীয় বর্বরতা ওদের কাছে হার মেনেছে। কতিপয় মাদকসেবী ও বখাটেরা হামলা চালিয়ে ৭টি বসতবাড়ি ও ১টি দোকান ভাংচুর ও মালামাল লুট করেছে। তাদের হামলায় মহিলাসহ ৭ জন আহত হয়েছে। বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার পূর্ব খোন্তাকাটা কৈয়ারপাড়য় বৃহস্পতিবার রাতে এ বর্বর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

জানা যায়, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দক্ষিণ খোন্তাকাটা এলাকার বখাটে যুবক ও মাদকসেবী রাসেল তালুকদার (২৫), লিটন সেপাই (২৪), টিপু সেপাই (২২), রুবেল আকন (২০), মোস্তফা (২৩), জাহিদুল (২৫), কবির মাতুব্বর (২৭) সহ ১৫-২০ জনের একটি দল পরিকল্পিতভাবে দা, লাঠিসোটা নিয়ে পূর্ব খোন্তাকাটা কৈয়ারপাড় এলাকার বাসিন্দা দুলাল তালুকদার, ইব্রাহিম তালুকদার, হাবিবুর রহমান তালুকদার, হারুন তালুকদার, মহারাজ হাওলাদার ও ইউসুফ খানের বসতবাড়িসহ ৭টি বাড়ি ও জলিল তালুকদারের বাড়ি এবং দোকানঘরে হামলা ও ভাংচুর করে। টাকা-পয়সাসহ মূল্যবান মালামাল লুটে নেয়। হামলাকারীদের তা-বে নারী-পুরুষ এদিক-ওদিক ছোটাছুটি করে পালিয়ে যায়। এ সময় মিনারা বেগম (৩০), পারভিন বেগম (২৮), রবিউল ইসলাম (২৫)সহ ৭ জন আহত হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় রবিউলকে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অন্য আহতরা হাসপাতালে ভর্তির জন্য গেলে ওই সন্ত্রাসীরা হাসপাতালে চড়াও হয়ে তাদের ভয়ভীতি দেখায়। স্থানীয়রা অভিযোগ বলেন, খোন্তাকাটা ইউনিয়নের দক্ষিণ খোন্তাকাটা এলাকা এখন সন্ত্রাসের জনপদে পরিণত করেছে ওই মাদকসেবীরা। তাদের ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না।

স্থানীয় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় থেকে ওই বখাটেরা দীর্ঘদিন ধরে নানা অপরাধ কর্মকা- চালিয়ে এলাকাটি অশান্ত করে তুলছে। খোন্তাকাটা ইউপি চেয়ারম্যান খান মতিয়ার রহমান ও ইউপি সদস্য মোঃ জাকির হোসেন বলেন, ওই চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় গাজা, ইয়াবা ও ফেনসিডেল বিক্রি ও সেবন করে এলাকার পরিবেশ নষ্ট করে ফেলছে। বর্বরচিত ওই হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত। তবে অভিযুক্তদের পক্ষের রাসেল গাং দাবি করেন, স্থানীয় দুই গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে। তবে ভাংচুর বা লুটপাটের কোন ঘটনা ঘটেনি এবং মাদকের সঙ্গে কেউ জড়িত নয়। শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ রেজাউল করিম জানান, এ বিষয়ে থানায় কেউ কোন অভিযোগ করেনি। তবে তিনি বিষয়টি খোঁজখবর নিবেন বলে জানান।