২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নববধূকে উঠিয়ে নেয়ার চারদিনের মাথায় সন্তান প্রসব

নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট, ২ অক্টোবর ॥ বিয়ে হয়েছে ১৩ দিন আগে। শ্বশুরবাড়িতে নববধূকে উঠিয়ে নেয়ার চার দিনের মাথায় কিশোরী বধূ ফুটফুটে পুত্রসন্তান প্রসব করেছে। স্বামী প্রসবকৃত সন্তানসহ নববধূকে বাবার বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছে। এই ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। শুক্রবার দুপুর দুইটায় সন্তানের বাবার স্বীকৃতি পেতে প্রেমিকের বিরুদ্ধে কিশোরী নববধূ আইনের আশ্রয় নিতে সংবাদকর্মীদের সহায়তা চেয়ে প্রেসক্লাবে উপস্থিত হয়।

জানা যায়, জেলার মোগলহাট ইউনিয়নের করুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশুনা করেছে দরিদ্র পরিবারের কিশোরী নিলুফা বেগম (১৪)। তিন বছর ধরে তার পড়াশুনা বন্ধ রয়েছে। প্রায় এক বছর আগে বাড়ির পাশে বেলাল হোসেনের ছেলে চমনের সঙ্গে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে ওঠে। এই সুবাদে কলেজ পড়ুয়া চমন নিলুফার সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক স্থাপন করে। কিশোরী কখন গর্ভবর্তী হয়ে পড়ে বুঝতে পারেনি।

গর্ভবতী হওয়ার কোন লক্ষ্য কিশোরীর দেহে দেখা যায়নি। কিশোরীটি দৈহিক সম্পর্কের কথা লোকলজ্জার ভয়ে কাউকে বলেনি। গত এক মাস আগে পারিবারিকভাবে জেলার আদিতমারী উপজেলার ভেলাবাড়ি আনন্দবাজার গ্রামের হারুন মিয়ার সঙ্গে বিয়ে হয়। নববধূকে ১৩ দিন আগে শ্বশুরবাড়ির স্বজনরা আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে নেয়। শ্বশুরবাড়িতে চার দিন অবস্থান করার পর ২৮ সেপ্টেম্বর নববধূর প্রসব বেদনা ওঠে। স্বজনরা স্থানীয় চিকিৎসক নিয়ে এসে পেট ব্যথার চিকিৎসা করার জন্য অনুরোধ করে।