১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

উজবেকিস্তানের গোলোৎসব

  • উজবেকিস্তান ৭-০ ভুটান

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এএফসি অনুর্ধ ১৯ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্বে শুক্রবার উদ্বোধনী ম্যাচে হয়েছে গোলের মহোৎসব। সেটা করেছে উজবেকিস্তান। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে তারা ৭-০ গোলে হারায় ভুটানকে। বিজয়ী দল প্রথমার্ধে এগিয়ে ছিল ২-০ গোলে।

মজার বিষয় হচ্ছে- ভুটান দলই সবার আগে বাংলাদেশে এসেছে। এ জন্য কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার সময় পেয়েছে অন্য দলগুলোর চেয়ে বেশি। এটাকে কাজে লাগাতে চেয়েছিল তারা। সেই কাজের ফল তারা পেল সাত গোল হজম করে!

সাত গোলে জিতলেও উজবেকরা এত বেশি গোলের সুযোগ নষ্ট করেছে, সেগুলোর কাজে লাগাতে পারলে হয় তো ম্যাচের স্কোরলাইন হতো ১৪-০! যদিও ম্যাচের প্রথম ৪১ মিনিট পর্যন্ত উজবেকদের উপর্যুপরি আক্রমণগুলো কোন মতে ঠেকিয়ে রাখে। কিন্তু ৪২ মিনিটে প্রতিরোধের দেয়াল ধসে পড়ে ভুটানের। উজবেকরা পায় কাক্সিক্ষত গোল। ডানপ্রান্ত থেকে বদলি মিডফিল্ডার শোখরব নুরুল্লয়েভের ফ্রি কিকে হেড নেন ডিফেন্ডার গফুরভ। গোলরক্ষক মিস করায় বল আশ্রয় নেয় জালে (১-০)। প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে বল নিয়ে ভুটানের বক্সে ঢুকে পড়েন নুরুল্লয়েভ। শট নিতে গেলে তাকে অবৈধভাবে বাধা দেন গোলরক্ষক জ্যাংপো। সৌদি রেফারি পেনাল্টির নির্দেশ দিলে বাঁ পায়ের গড়ানো শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মিডফিল্ডার সারফ (২-০)। দ্বিতীয়ার্ধে গোল করার তৃষ্ণা আরও বেড়ে যায় উজবেকিস্তানের। ৫৫ মিনিটে ভুটানের জালে বল পাঠান মিডফিল্ডার কদিরকুলভ (৩-০)। ৭০ মিনিটে ডানপ্রান্ত থেকে আলী জনভের উড়ন্ত ক্রসে পা ছুঁইয়ে লক্ষ্যভেদ করেন এবডিক্সোলিকভ (৪-০)। ৮০ মিনিটে গোলরক্ষককে কাটিয়ে ফাকা পোস্টে আবারও বল পাঠান এই মিডফিল্ডার (৫-০)। ৮৭ মিনিটে ডিফেন্ডারের ভুলে আরও এক গোল হজম করে ভুটান। ভুটানের একজন ডিফেন্ডার বল সরাতে গেলে প্রতিপক্ষ মিডফিল্ডার সাইদজামলের পায়ে চলে যায়। বুঝেশুনে সময় নিয়ে ঠা-া মাথায় লক্ষ্যভেদ করেন এই মিডফিল্ডার (৬-০)। ইনজুরি টাইমে বক্সের কাছেই ফ্রি কিক পেয়ে ম্যাচের সপ্তম গোল করেন মিডফিল্ডার তুখতাসিনভ (৭-০)। সাত গোলের বিশাল জয়ের আনন্দ নিয়েই মাঠ ছাড়ে উজবেক দল।

উজবেকিস্তানের কোচ আব্দুরাইমভ জাসুর বলেন, ‘এই আসরে সাফল্য পেতে আশাবাদী। এ জন্য আমরা খুবই সিরিয়াস। সাফল্য পেতে অগ্রসর হতে চাই ধাপে ধাপে।’ উজবেকিস্তানের অধিনায়ক কবিলভ ইসলমজন বলেন, ‘আমাদের প্রস্তুতি ভাল। তিন মাস ধরে অনুশীলন করেছি। আশা করি আমরা বাছাইপর্বের গ-ি পেরিয়ে মূলপর্বে পৌঁছাতে পারব। যদিও সব দলকেই আমরা কঠিন প্রতিপক্ষ বলে মনে করি। সবাইকেই সমীহ করছি। তাই আমাদের জন্য সব ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ।’