২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নিয়োগ পাওয়ার পথে গঞ্জালো

  • অনুর্ধ ১৯ জাতীয় ফুটবল দলের দায়িত্ব নেবেন এই স্প্যানিশ কোচ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গুঞ্জন সত্যি হয়েছে অবশেষে। স্প্যানিশ কোচ গঞ্জালো সানচেজ মোরেনোকেই অনুর্ধ ১৯ দলের প্রধান কোচ (ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম) হিসেবে বেছে নিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। শুক্রবার বাফুফে সভাপতি কাজী মোঃ সালাউদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। নিয়োগের সব প্রক্রিয়া চূড়ান্ত হলেও এখনও গঞ্জালোর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক চুক্তি স্বাক্ষর হয়নি বাফুফের। আগামী রবি বা সোমবার হতে পারে চুক্তি স্বাক্ষর।

গঞ্জালোর প্লেয়িং ক্যারিয়ার বেশ উজ্জ্বলই। বার্সেলোনার ‘বি’ দল ও সিনিয়র দলে খেলেছেন তিনি। ১৯৯৩-৯৪ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনালে বার্সা এসি মিলানের কাছে ৪-০ গোলে হেরেছিল। সেই ম্যাচে সাইডবেঞ্চে ছিলেন ৪৩ বছর বয়সী এই কোচ। গত বছর তিনি মাদাগাস্কারের প্রিমিয়ার লীগের দল সিএনপিএসের কোচ ছিলেন। এ ছাড়া মাদাগাস্কার অনুর্ধ ১৭ দলের কোচও ছিলেন। শুক্রবার দুপুরে বাফুফে সভাপতির সঙ্গে বৈঠক করেন গঞ্জালো। বৈঠক শেষে বেরিয়ে যাওয়ার সময় তিনি জানান, আগামী ৬ মাসের জন্য অনুর্ধ ১৯ দলের প্রধান কোচ হিসেবে কাজ করবেন তিনি।

তবে বাফুফে সভাপতি অবশ্য বলেছেন অনুর্ধ ১৬ ও অনুর্ধ ১৯ পর্যায় থেকে বাছাইকৃত ফুটবলারদের নিয়েও কাজ করতে হবে নতুন কোচকে। গঞ্জালোর সহকারী হিসেবে কাজ করবেন অনুর্ধ ১৯ দলের বর্তমান কোচ সাইফুল বারী টিটু। আর গোলরক্ষক কোচ ক্রিস্টিয়ান শোয়েচলারও থাকবেন তার সঙ্গে। তবে গঞ্জালো একাডেমির হয়ে কাজ করবেন না। এর মাধ্যমে শোয়েচলারের কাজের বিষয়টিও পরিষ্কার হলো। নতুন কোচের অধীনে বাংলাদেশ ভাল করবে বলে আশা করেছেন বাফুফে সভাপতি, ‘এই কোচ বিশ্বসেরা বার্সেলোনা একাডেমিতে ৮ বছর বয়স থেকেই ছিলেন। তাই ফুটবল সম্পর্কে তার ধারণা খুব ভাল। কোচিং ক্যারিয়ার খুব বেশি সময়ের না হলেও বার্সা একাডেমিতে যা দেখেছেন, তা কাজে লাগাতে পারবেন। আগামী ৬ মাসের জন্য চুক্তি আমরা করছি প্রাথমিকভাবে। পারফর্মেন্স অনুযায়ী চুক্তির মেয়াদ পরবর্তীতে বাড়ানো হতে পারে।’

উল্লেখ্য, গঞ্জালোর স্ত্রী বাংলাদেশে একটি বেসরকারী সংস্থায় কাজ করছেন। তাই ঢাকায় বেশ কিছুদিন ধরেই তার যাতায়াত রয়েছে। বাফুফের সঙ্গে এর আগেও তিনি আলোচনা করেছেন। এবার তার নিয়োগের মাধ্যমে সব গুঞ্জনের অবসান হতে চলেছে।