২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অক্টোবর ॥ হিলারির ভাগ্য নির্ধারণী মাস

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রধান মনোনয়ন প্রত্যাশী হিলারি ক্লিনটন শিবিরের জন্য অক্টোবর মাস এক গুরুত্বপূর্ণ সময় হতে পারে। এ মাসে এমন কতকগুলো অনুষ্ঠান রযেছে যেগুলো তাকে তার রাজনৈতিক শক্তি দেখানোর সুযোগ দেবে, কিন্তু যদি তিনি নির্বাচনী ধারার ওপর তার নিয়ন্ত্রণ পুনরুদ্ধার করতে ব্যর্থ হন, তাহলে সেগুলো তাকে আরও ঝুঁকির মুখে ঠেলে দেবে। খবর ওয়াশিংটন পোস্টের।

নির্ধারিত দিনপঞ্জি অনুযায়ী ১৩ অক্টোবর ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থীদের প্রথম বিতর্কানুষ্ঠান হবে, তিনি ২২ তারিখ বেনগাজির মার্কিন দূতাবাসে পরিচালিত হামলার ঘটনা নিয়ে প্রতিনিধি পরিষদের সামনে সাক্ষ্য দেবেন। আর তিন দিন পর আইওয়া অঙ্গরাজ্যে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির বার্ষিক ভোজসভা উপলক্ষে অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বীর সঙ্গে জনসমক্ষে অবতীর্ণ হবেন। ইতোমধ্যে নির্ধারিত এ তিনটি বড় অনুষ্ঠান ছাড়াও অক্টোবরেই হিলারির জন্য এক বড় প্রশ্নের জবাব পাওয়া যাবে : ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ২০১৬ সালের নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় যোগ দেবেন কি না। হিলারিকে চলতি মাসে জনসমক্ষে অবতীর্ণ হয়ে বড় ধরনের বিজয় অর্জন করতে হবে। তার কৌশলগত ও উপদেষ্টারা একথা বলেন। ডেমোক্র্যাটিক রাজনীতির প্রধান ব্যক্তি হিসেবে তার অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করার লক্ষ্যে তাকে তার বক্তব্য তুলে ধরতে বেনগাজি শুনানি ও বিতর্কানুষ্ঠানকে কাজে লাগাতে হবে। যদি তিনি অক্টোবরের রাজনৈতিক সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে না পারেন, তাহলে এপ্রিলে যখন তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আসেন তখন যে কেউ যেমন অনুমান করে থাকতে পারেন। প্রথম দফার প্রাইমারি ও ককাসে তার চেয়ে বেশি দুর্বল বলে মনে হতে পারে হিলারিকে।

এরই মধ্যে সিনেটর বার্নি স্যাডারস আরও বেশি বেশিসংখ্যক ও বেশি উৎসাহী লোকজনকে আকৃষ্ট করছেন এবং কড়া বামপক্ষদের সমর্থন হিলারির কাছ থেকে নিজের পক্ষে টেনে আনছেন। প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বাইডেনের যোগদান ডেমোক্র্যাটিক পার্টির অবশিষ্ট সমর্থকদের নিজের পক্ষে আনতে হিলারির পথ আরও কঠিন করে তুলতে পারে। এটি হিলারির সবচেয়ে বেশি অভিজ্ঞ প্রার্থী হওয়ার দাবিকেও দুর্বল করে দিতে পারে।