১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইলিশ ধরার অপরাধে লক্ষ্মীপুরে ৪৮ জেলের জেল-জরিমানা

নিজস্ব সংবাদদাতা, লক্ষ্মীপুর ॥ লক্ষ্মীপুরের মেঘনা নদীতে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ ধরার অপরাধে ৪৮জন জেলেকে আটক করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। পরে তাদেরকে বিভিন্ন মেয়াদে জেল-জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। শনিবার দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আরিফুল ইসলাম ভ্রাম্যামাণ আদালত বসিয়ে তাদের এ সাজা দেন। এর আগে শুক্রবার রাত থেকে শনিবার দুপুর পর্যন্ত সদর উপজেলার মেঘনা নদীর মজু চৌধুরীর হাট, রামগতি ও কমলনগরের মতির হাট মাছ ঘাটসহ বিভিন্ন স্থানে স্থানীয় মৎস্য বিভাগ, কোষ্টগার্ড অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে আটক করে। এ সময় ২৮হাজার মিটার জাল ইলিশ মাছ ধরার জাল জব্দ করে ভ্রাম্যমান আদালত। পরে সেগুলো মজু চৌধুরীর হাট এলাকায় পুড়িয়ে ফেলা হয়। যার বাজার মূল্য পাঁচ লাখ ৬০হাজার টাকা।

একই সময়ে তাদের কাছ থেকে কিছু মাছ জব্দ করা হয়। জব্দকৃত পরে ইলিশ একাধিক এতিমখানায় বিতরণ করা হয়।

উল্লেখ্য, ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে ০৯ অক্টোবর পর্যন্ত মা ইলিশের প্রজনন মৌসুম। এ সময় লক্ষ্মীপুরের রামগতি থেকে চাঁদপুরের ষাটনল পর্যন্ত মেঘনা নদীর প্রায় একশ’ কিলোমিটার এলাকায় মাছধরা, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাতকরণ ও ক্রয়-বিক্রয় সরকারের নিষেজ্ঞা রয়েছে। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করার দায়ে যে কোনো ব্যক্তিকে কমপক্ষে ১ বছর থেকে সর্বোচ্চ ২ বছরের সশ্রম কারাদন্ড, ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত করার বিধান রয়েছে। উক্ত কর্মসূচী সফল বাস্তবায়িত হলে মেঘনায় চার লাখের বেশী ইলিশ উৎপাদিত হবে। মেঘনা থেকে আহরিত ইলিশ থেকে সরকারের বিশাল অংকের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন কয়েক হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আয় হবে বলে সংশ্লিষ্ট দপ্তর জানিয়েছে।