১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ওবামার হুঁশিয়ারি অগ্রাহ্য

  • সিরিয়ায় আইএস ও বিদ্রোহী অবস্থানে রুশ বিমান হামলা অব্যাহত ॥ ইরান আরও সৈন্য পাঠিয়েছে

সিরিয়ার খ--বিখ- রণক্ষেত্রের পরিস্থিতি শুক্রবার আরও জটিল রূপ ধারণ করে। রাশিয়া ও ইরান মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার হুঁশিয়ারি অগ্রাহ্য করে সঙ্কটাপন্ন সিরীয় সরকারকে রক্ষা করতে তাদের সামরিক তৎপরতার বিস্তার ঘটিয়েছে। ওবামা তাদের তৎপরতা কেবল এক কঠিন অবস্থারই সৃষ্টি করবে বলে ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন। খবর বিবিসি ও নিউইয়র্ক টাইমসের।

চলতি সপ্তাহে সিরীয় লক্ষ্যবস্তুর ওপর রাশিয়া বিমান হামলা শুরু করার পর ওবামা তার প্রথম মন্তব্যে বলেন, মস্কো এর শক্তির বশবর্তী হয়ে নয় বরং দুর্বলতার কারণেই তৎপরতা চালাচ্ছে। তাঁর নিজস্ব সিরিয়া নীতির সমালোচনা উড়িয়ে নিয়ে ওবামা তার স্বদেশী আমেরিকান বিরোধীরা নিরর্থক অপরিপক্ক ধারণা দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন। ওবামা হোয়াইট হাউসে শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আসাদের হাতকে শক্তিশালী এবং জনগণকে তুষ্ট করতে রাশিয়া ও ইরানের চেষ্টা তাদের কাদায় আটকে ফেলবে মাত্র এবং সে চেষ্টায় কাজ হবে না। তিনি রাশিয়া ও ইরান উভয়ের দীর্ঘদিনের মিত্র সিরীয় প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের প্রতি ইঙ্গিত করছিলেন। ওবামা বলেন, তারা ভিন্ন কোন পথ না নিলে তারা সেখানে সাময়িকভাবেই থাকতে পারবে।

ওবামা বলেন, আসাদের সমর্থনে সিরিয়ায় রাশিয়ার বোমাবর্ষণ আসাদবিরোধী মধ্যপন্থীদের আত্মগোপন করতে বাধ্য করছে এবং ইসলামিক স্টেটকেই শক্তিশালী করছে মাত্র। আমাদের সব সশস্ত্র বিরোধীরাই সন্ত্রাসীÑ রাশিয়ার ওই উক্তি ওবামা প্রত্যাখ্যান করেন। রাশিয়া বা ইরান কেউই ওবামার কথায় কর্ণপাত করার লক্ষণ দেখাচ্ছে না। মস্কো ইসলামিক স্টেটের ভূখ-ের ওপর হামলা চালাতে প্রথমবারের মতো এর বিমান অভিযান সম্প্রসারিত করেছে, আর রুশ সৈন্যরা সিরিয়ায় তাদের সহকর্মীদের আগ্নেয়াস্ত্রের ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য দূরপাল্লার কামান খালাস করেছে। এক আমেরিকান কর্মকর্তা এ কথা জানান। একই সময়ে ইরান আসাদ সরকারের শক্তি বৃদ্ধি করতে অতিরিক্ত স্থল সৈন্য পাঠিয়েছে। ওবামার সামনে এখন এমন এক অবনতিশীল পরিস্থিতি, যার ওপর তার আগের তুলনায় অনেক কম নিয়ন্ত্রণই রয়েছে। নিউইয়র্কে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি তার ইরানী প্রতিপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করলেও এতে দৃশ্যত কোন অগ্রগতি হয়নি। এদিকে, ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যের আমেরিকান মিত্ররা আসাদবিরোধী সিরীয় মধ্যপন্থীদের ওপর বোমাবর্ষণ বন্ধ করতে রাশিয়ার প্রতি প্রকাশ্য আহ্বান জানিয়েছে। ওবামা তার এ অভিমত পুনর্ব্যক্ত করেন যে, দীর্ঘদিন ধরে চলমান ওই ভ্রাতৃঘাতী লড়াইয়ের কোন সামরিক সমাধান নেই। আসাদকে ক্ষমতা থেকে বিদায় করে দিয়েই কেবল কোন রাজনৈতিক মীমাংসা আনা যাবে।

রাশিয়া শুক্রবার এর বোমাবর্ষণ ক্ষেত্রে বিস্তার ঘটিয়েছে। এর যুদ্ধবিমান সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শহর রাকার কাছে এক কমান্ড পোস্ট ও ট্রেনিং ক্যাম্পসহ সাতটি লক্ষ্যবস্তুর ওপর আঘাত আনে বলে মস্কো জানায়।

রাকাকেই ইসলামিক স্টেট সিরিয়া ও ইরাকের বিস্তীর্ণ ভূখ-ে এর স্বঘোষিত খিলাফতের রাজধানীতে পরিণত করে। এর আগে রাশিয়া আইএসের নিয়ন্ত্রণে ছিল না, বরং আমেরিকান সমর্থিত বিদ্রোহীদের অবস্থানস্থলই ছিল এমন ভূখ-ের ওপর বিমান হামলা চালায়। রাশিয়া স্মার্চ নামে এক ধরনের শক্তিশালী রকেট এনে আরও সামর্থ্যরে পরিচয় দিতে বদ্ধপরিকর বলে মনে হয়। রুশ সামরিক উপদেষ্টারা পূর্বদিকে হামায় গিয়ে ঘোড়দৌড়ের এক মাঠে তাঁবু নির্মাণ করছেন বলেও আমেরিকান গোয়েন্দা বিশ্লেষকরা খোঁজ পেয়েছেন। তবে রুশদের উদ্দেশ্য স্পষ্ট নয়। একইভাবে ইরান সিরিয়াতে এর নিজের উপস্থিতিকে শক্তিশালী করছে। সাম্প্রতিক দিনগুলোতে ৩০০ থেকে ৬০০ ইরানী সৈন্য সিরিয়ায় পৌঁছে বলে মার্কিন কর্মকর্তারা জানান। এসব সৈন্য লেবাননী শিয়া দল হিজবুল্লাহর ৫,০০০ এরও বেশি মিলিশিয়া যোদ্ধার সঙ্গে কয়েক মাস ধরে সিরিয়ায় থাকা প্রায় ১৫০০ ইরানীর শক্তি বৃদ্ধি করছে। ইরানের মিত্র ঐ দলটি সিরীয় সরকারের ভূখ- রক্ষায় ক্রমবর্ধমান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।