২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তারুণ্যের জাতিসংঘ...

‘জাতিসংঘ সম্পর্কে জেনেছি সমাজবিজ্ঞান বইয়ের ছোট একটি অধ্যায়ে। সেখান থেকে জাতিসংঘ সম্পর্কে জানার ও বোঝার কৌতূহলী ছিলাম, স্বপ্ন দেখতে শুরু করলাম, কল্পনা রাজ্যে তখন একটাই নাম ‘জাতিসংঘ’। আর সেই লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়নের সুযোগ পেলাম ইউনিস্যাবের মাধ্যমে’ বলছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সদ্য হয়ে যাওয়া ইউনিস্যাব মান-২০১৫ এর স্পেনের প্রতিনিধি নাহিয়ান নুসরাত।

‘সুষম এবং টেকসই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির জন্য চাই সুশাসন প্রতিষ্ঠা’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বাংলােেদশের ছায়া জাতিসংঘের অগ্রদূত ইউনিস্যাবের রাজশাহী বিভাগীয় শাখার উদ্যোগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪ সেপ্টেম্বর শুরু হয় চার দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন ইউনিস্যাব মান-২০১৫। সম্মেলনটি উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম এমপি। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫টি সম্মেলন কক্ষে সম্মেলনগুলো অনুষ্ঠিত হয়।

‘ইউনিস্যাব মান এমন একটা কার্যক্রম পরিচালনা করেছে যা সত্যি অসাধারণ। আন্তর্জাতিকভাবে নেতৃত্ব গড়ে তোলার একটি প্রক্রিয়া। এই ছায়া জাতিসংঘের প্রতিনিধিরা একদিন জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দিবে’ এমনটাই বলছিলেন মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম।

চলছে বিশ্বে অভিবাসন সঙ্কট। এর প্রমাণ মেলে ভূমধ্যসাগরে প্রতিনিয়ত মৃত্যুর ঘটনা, যার সর্বশেষ শিকার সৈকতে মুখ থুবড়ে পড়ে থাকা শিশু আয়লানের নিথর দেহ বিশ্ববিবেককে প্রচ- ঝাঁকুনি দিয়েছে। যা প্রশ্নবিদ্ধ করেছে বিশ্ব মানবতাকে। বিশ্ববাসীকে জানিয়ে গেছে শরণার্থীদের দুঃখ-দুর্দশার নিমর্মতা। এমনই কথা ভেসে আসছিল রাবিতে ইউনিস্যাবের ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলনের হিউম্যান রাইটস কাউন্সিলের ইফতেখার শাহরিয়ারের কাছ থেকে।

এই সম্মেলনের পাঁচটি কমিটির অধীনে দেশের চল্লিশটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২৬৬ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। কমিটিগুলো হচ্ছে ইউনাইটেড ন্যাশন্স ইনভাইরোনমেন্ট প্রাগাম (ইউএনইপি), হিউম্যান রাইটস কাউন্সিল (এইচআরসি), ইকোনমিক এ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল কমিটি (ই. কো.ফিন), স্পেশাল কমিটি ফর বাংলাদেশ এ্যাফেয়ার্স (এসিব্িিড) ও সিকিউরিটি কাউন্সিল (এসসি)।

সম্মেলনটি শুরু হয় একটি প্লেনারি সেশনের মাধ্যমে। সম্মেলনের বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধি হয়ে আসা শিক্ষার্থীরা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। এসবের মধ্যে ছিল সুশাসন ও সামাজিক সমতার মাধ্যমে টেকসই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, অগ্রসরমান সবুজ অর্থনীতি ও জলবায়ু পরিবর্তনে স্বচ্ছ ও কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ, দক্ষ সরকার ব্যবস্থা বিনির্মাণে নাগরিকের তথ্য পাওয়ার অধিকার, বাংলাদেশে বসবাসকারী ক্ষৃদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সম্পদের অধিকার নিশ্চিতকরণ, বিশ্ব উন্নয়নে তরুণদের ভূমিকাসহ নানাবিদ গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু আলোচনা-পর্যালোচনা ও সমস্যা সমাধানের পথ অন্বেষণ।

সম্মেলনের শেষ দিন গত ৭ সেপ্টেম্বর কমিটি সেশন শেষে সাধারণ পরিষদে রেজুলেশন পাস করার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন ইউনিস্যাব মান-২০১৫ পূর্ণতা লাভ করে। এদিন সম্মেলন শেষে প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে সিনেট ভবনে সমাপনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ইউনিস্যাব মান-২০১৫ এর সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাজশাহী-২ আসনের সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, ‘তোমাদের প্রয়োজন বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠিত করতে। আমার বিশ্বাস, একদিন তোমরাই বাংলাদেশের প্রতিনিধি হয়ে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।’

ইমদাদুল হক সোহাগ

নির্বাচিত সংবাদ