২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পরিবারের সবাইকে অচেতন করে সর্বস্ব লুট

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ শরণখোলায় একই পরিবারের ৮ ব্যক্তিকে অচেতন করে নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার ও মোবাইল সেটসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র লুটে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার গভীর রাতে ধানসাগর ইউনিয়নের আমড়াগাছিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ব্যবসায়ী বাবুল বড়াল ও তার পরিবারের সদস্যরা রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। এদের মধ্যে বাবুলের বৃদ্ধ পিতা যতীন্দ্রনাথ বড়াল ওই রাতে খাবার না খাওয়ায় শনিবার ভোরে তার ঘুম ভাঙ্গলে ঘরের মধ্যে থাকা আসবাবপত্র ছড়ানো ছিটানো দেখে সবাইকে ডাকতে থাকেন।

কিন্তু এতে কেউ সাড়া না দিলে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসেন। একপর্যায়ে বাবুলের ঘুম ভাঙলে তার পেটে মারাত্মক ব্যথা শুরু হয়। ওই রাতে বাবুল বড়াল, চপলা রানী, সঞ্জয়, অনিতা রানী, অরুণ ম-ল ও রনিসহ ৬ জনকে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে স্থানীয়রা।

বাবুল বলেন, তার ঘরে থাকা নগদ ৫৫ হাজার টাকা, স্বর্ণালঙ্কার, ৭টি মোবাইল সেট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ৬টি হিসাবের খাতাসহ গুরুত্বপূর্ণ মালামাল খোয়া গেছে।

বরিশালে দুই প্রবাসীর লাশ দাফন

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ পরিবারের অভাব-অনটন দূর করার জন্য মাত্র দু’মাস আগে বিদেশ নামের সোনার হরিণ ধরার জন্য মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমিয়েছিল দুই চাচাতো ভাই। অবশেষে তাদের দু’জন ফিরেছে লাশ হয়ে। শনিবার সকালে নিহত দু’জনের লাশ জানাজা শেষে পারিবারিক গোরস্তানে দাফন করা হয়। ঘটনাটি জেলার গৌরনদী উপজেলার নাঠৈ গ্রামের।

জানা গেছে, সৈয়দ আব্দুর রহমানের পুত্র সৈয়দ রুমান (২৮) ও সৈয়দ আব্দুল হালিমের পুত্র সৈয়দ ফয়সাল (৩০) কুয়ালালামপুর শহরের একটি বেসরকারী কোম্পানিতে চাকরি করতেন। এরই মধ্যে ঈদ-উল-আযহার দিন তাদের অফিস বন্ধ থাকায় তারা দু’জনেই মোটরসাইকেল নিয়ে ঘুরতে বের হন। মোটরসাইকেলের সঙ্গে ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই তারা নিহত হন। শুক্রবার তাদের মরদেহ বাংলাদেশে আসে। রাত নয়টার দিকে তাদের লাশ গ্রামের বাড়িতে আনা হয়।

মেঘনায় পুলিশ মৎস্যজীবী সংঘর্ষ

ইলিশ শিকারে বাধা

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ হিজলা উপজেলার চরআবুপুর সংলগ্ন মেঘনা নদীতে ইলিশ ধরতে বাধা দেয়াকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে জেলেদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় জেলেদের হামলায় ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশ ২০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি করলে জেলেরা জাল ও ট্রলার ফেলে পালিয়ে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাত সাড়ে দশটার দিকে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে হিজলা থানার ওসি জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে দশটার দিকে মেঘনা নদীর চরআবুপুর এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় সেখানে ৪/৫টি ট্রলারে ইলিশ শিকার করতে দেখে ধাওয়া করে পুলিশ। একপর্যায়ে জেলেরা ট্রলারগুলো নদীর কুলে ভিড়িয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। এতে ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ সদস্যরা ২০ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করলে হামলাকারী জেলেরা দ্রুত পালিয়ে যায়। সেখান থেকে ৪টি ট্রলার ও ট্রলারে থাকা প্রায় ৫০ হাজার মিটার জাল জব্দ করা হয়।