২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কবি উৎপল কুমার বসু আর নেই

স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রিয় পৃথিবীকে চিরতরে বিদায় জানালেন বাংলাভাষার প্রখ্যাত কবি উৎপল কুমার বসু। শনিবার দুপুরে কলকাতার একটি নার্সিং হোমে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। কবির বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। ক’দিন আগে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে কলকাতার ওই নার্সিং হোমে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

১৯৩৯ সালে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ভবানীপুরে জন্মগ্রহণ করেন উৎপল কুমার বসু। ১৯৫৬ সালে প্রকাশিত হয় তাঁর প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘চৈত্রে রচিত কবিতা।’ বাংলা সাহিত্যে ‘স্থিতাবস্থা’ ভাঙ্গার আওয়াজ তুলে ষাটের দশকের শুরুর দিকে যে আন্দোলনের সূচনা হয়েছিল, সেই হাংরি আন্দোলনের পথিক ছিলেন উৎপল কুমার বসু। রোমান্টিকতার পথ ছেড়ে বস্তুবাদী পর্যবেক্ষণ হয়ে ওঠে তাঁর কবিতার মূল উপজীব্য। স্বতন্ত্র কাব্যভাষা, প্রকাশভঙ্গি ও আঙ্গিকের জন্য পাঠকপ্রিয়তা পেয়েছিলেন এই কবি। তাঁর বিখ্যাত কাব্যগ্রন্থ ‘পুরী সিরিজ’ প্রকাশিত হয় ১৯৬৪ সালে। ‘নরখাদক’ প্রকাশিত হয় ১৯৭০ সালে। ‘পিয়া মন ভাবে’ কাব্যগ্রন্থের জন্য ২০১৪ সালে সাহিত্য আকাদেমি পুরস্কার পান উৎপল কুমার বসু। আর ‘সুখ-দুঃখের সাথী’ কাব্যগ্রন্থের জন্য ২০০৬ সালে অর্জন করেন আনন্দ পুরস্কার। তাঁর উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ‘বক্সিগঞ্জে পদ্মাপাড়ে’ ও ‘সলমা জরির কাজ’।