২২ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভ্যাট ফাঁকি রোধে এলটিইউতে গোয়েন্দা ও তদন্ত শাখা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বড় প্রতিষ্ঠানের ভ্যাট ফাঁকি ধরতে গোয়েন্দা শাখা গঠন করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) বৃহৎ ইউনিট করদাতা ইউনিট (এল টি ইউ ভ্যাট)।

এলটিইউর কমিশনার শাহনাজ পারভীন গত ২৩ সেপ্টেম্বর নতুন এ শাখার অনুমোদন দেন। অতিরিক্ত কমিশনার লুৎফর রহমান ও সহকারী কমিশনার বদরুজ্জামান মুন্সীকে এর দায়িত্ব দেওয়া হয়।

সূত্র জানায়, এনবিআর’র কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সেল-সিআইসি’র আদলে কাজ করবে এই গোয়েন্দা শাখা। ইতোমধ্যেই ঝুঁকিপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের তালিকাও তৈরি করেছে নতুন এই গোয়েন্দা শাখা। শিগগিরই অভিযানে নামবে বলেও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়।

এলটিইউর অধিক্ষেত্রভুক্ত প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম ও কর ফাঁকি সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহে কাজ করবে গোয়েন্দা ইউনিট। ভ্যাট আইনের ২৬ ধারা অনুযায়ী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে তাৎক্ষণিক অভিযান পরিচালনা ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। অভিযানে প্রতিষ্ঠানের আমদানি ও ব্যবসায়ী লেনদেনের তথ্য যাচাইয়ের মাধ্যমে কর ফাঁকি উদ্ঘাটন করা হবে।

পাশাপাশি কাস্টমস আইন ও ভ্যাট বিধিমালা অনুযায়ী যেকোনো আমদানি পণ্য চালান বা পণ্য বহনকারী যানবাহন বা ব্যক্তিকে আটক, তল্লাশি ও জব্দ করার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে গোয়েন্দা ইউনিটকে।

এ ছাড়া ঝুঁকিপূর্ণ করদাতাদের চিহ্নিত করে রিস্ক প্রোফাইল প্রস্তুত করবে গোয়েন্দা ইউনিট। এই প্রোফাইলের ওপর ভিত্তি করে পরবর্তী সময়ে প্রতিষ্ঠানকে ভ্যাট সংক্রান্ত সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে।

এলটিইউর অতিরিক্ত কমিশনার লুৎফর রহমান জনকণ্ঠকে বলেন, কাজের সুবিধার্থে নতুন এই শাখা করা হয়েছে। আগে কোন অভিযোগ আসলে তা তদন্ত করতে হতো তদন্ত রিফান্ড ও বকেয়া শাখাকে। এখন থেকে তদন্ত ও গোয়েন্দা শাখা পৃথক ভাবে কাজ করবে।