১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পদ্মা সেতুতে কর্মরত বিদেশীদের নিরাপত্তা নিয়ে কোন সমস্যা নেই ॥ ও. কাদের

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পদ্মা সেতু নির্মাণে বিদেশীদের নিরাপত্তার ব্যাপারে কোন সমসা নেই। ভবিষ্যতেও কোন সমস্যা হবে না। সেনাবাহিনী, পুলিশ ও নৌপুলিশ তাদের নিরাপত্তায় কাজ করছে। এলাকাবাসীও আন্তরিকতা দিয়ে বিদেশীদের সহযোগিতায় কাজ করছে। ষড়যন্ত্রকারীদের মোকাবেলায় তারা আন্তরিকাতার পরিচয় দিচ্ছে। এছাড়া তাদের নিরাপত্তায় র‌্যাম্প রিজার্ভ ফোর্স (আরআরএফ) নিয়োজিত করা হয়েছে। জেলা গোয়েন্দা পুলিশের নজরদারিও বাড়ানো হয়েছে। নদীতে তাদের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

সেতুমন্ত্রী রবিবার দুপুরে লৌহজংয়ের কুমারভোগে পদ্মা সেতুর কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ কোম্পানির হলরুমে বিদেশীদের নিরাপত্তার ব্যাপারে এক সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, আগামী নবেম্বরে মূল সেতুর পাইলিং ও নদী শাসনের কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ পর্যন্ত পদ্মা সেতুর মোট ২৫ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। তিনি আরও বলেন, পৃথিবীতে দুটি খরস্রোতা নদী রয়েছে, যার একটি পদ্মা। নদী ভাঙ্গনের ফলে পদ্মা সেতু নির্মাণে মূল পাইলিংয়ের কাজ কিছুটা বিলম্বিত হয়েছে। তারপরও ২০১৮ সালের মধ্যেই এ সেতু উদ্বোধন করা হবে। মূল পাইলিংয়ের কাজ অক্টোবরে করার কথা ছিল। কিন্তু নদী ভাঙ্গনের ফলে তা এখন নবেম্বরে করা হবে। একই সঙ্গে করা হবে নদী শাসনের মূল কাজ। এ দুটি কাজই আগামী মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করবেন।

সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সেনাবাহিনী ৯৯ কম্পোজিট ব্রিগেডের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হামিদুল হক, পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান মোঃ আব্দুল কাদের, নির্বাহী প্রকৌশলী (পুনর্বাসন) তোফাজ্জল হোসেন, পদ্মা সেতুর ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ কোম্পানির ডেপুটি প্রজেক্ট ডিরেক্টর লিও, নদী শাসনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো কর্পোরেশনের চীফ সিকিউরিটি ইঞ্জিনিয়ার সিন, মুন্সীগঞ্জ জেলা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হুমায়ুন রশীদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল হালিম, এএসপি (সার্কেল) মোঃ সামসুজ্জামান বাবু, লৌহজং উপজেলা ইউএনও মোঃ খালেকুজ্জামান, ওসি মোল্লা মোঃ জাকিরসহ স্থানীয় প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তারা।