২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কুন্দুজে হাসপাতালে হামলা যুদ্ধাপরাধের শামিল

  • জাতিসংঘ মানবাধিকার বিষয়ক হাইকশিনারের নিন্দা ॥ পূর্ণাঙ্গ তদন্তের প্রতিশ্রুতি ওবামার

আফগানিস্তানের কুন্দুজ শহরের এক হাসপাতালে বিমান হামলার ঘটনায় নিহতদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে এর পূর্ণাঙ্গ তদন্তের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা মেডিসিন্স স্যানস ফ্রন্টিয়ার্সের (এমএসএফ) পরিচালিত হাসপাতালে শনিবার ভোরে মার্কিন বিমান হামলায় ১৯ জন নিহত হয়েছে। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে এটিকে বিয়োগান্তক, ক্ষমার অযোগ্য, এমনকি যুদ্ধাপরাধ হিসেবে অভিহিত করেছেন জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার জায়েদ রাদ আল হুসেইন। তিনি ওই হামলার পূর্ণাঙ্গ ও স্বচ্ছ তদন্ত দাবি করেন। খবর এএফপি ও বিবিসির।

কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ কুন্দুজ শহরের দখল নিয়ে আফগান সরকারী বাহিনীর সঙ্গে তালেবানের ব্যাপক লড়াই চলছে। তালেবানবিরোধী অভিযানে আফগান বাহিনীকে সহায়তা করতে মার্কিন বাহিনী কুন্দুজে বিমান হামলা চালায়।

এমএসএফ জানিয়েছে, বিমান হামলায় তাদের ১২ কর্মী ও চার শিশুসহ সাত রোগী নিহত হয়েছে। গুরুতরভাবে আহত হয়েছে অন্তত ৩৭ জন। হোয়াইট হাউসের শনিবার প্রকাশ করা এক বিবৃতিতে ওবামা বলেন, আমেরিকার জনগণের পক্ষ থেকে আমি ডক্টরস উইথআউট বর্ডারের কুন্দুজ হাসপাতালের নিহত পেশাজীবী ও অন্যান্য বেসামরিক নিহত ও আহতের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। তবে ঘটনাটি নিয়ে এখনই চূড়ান্ত কোন মন্তব্য করতে চান না তিনি। এজন্য মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের নিজস্ব তদন্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন ওবামা। মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী এ্যাশটন কার্টার একে ‘তীব্র লড়াইয়ের মধ্যে ঘটে যাওয়া একটি শোকাবহ ঘটনা’ বলে আখ্যায়িত করেছেন।

আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি বলেছেন, আফগানিস্তানে মার্কিন বাহিনীর প্রধান তার কাছে ঘটনা ব্যাখ্যা করে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এমএসএফ দাবি করেছে, এই হামলা চলার সময় কাবুল ও ওয়াশিংটনে সামরিক কর্মকর্তাদের ফোন করা সত্ত্বেও হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র ও জরুরী চিকিৎসা রুমগুলো লক্ষ্য করে প্রায় ঘণ্টাখানেক ধরে বোমাবর্ষণ করা হয়। এ বিষয়ে ‘পরিপূর্ণ ও পরিষ্কার ব্যাখ্যা’ দাবি করেছে সংস্থাটি। ‘জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার জন্য’ এ ঘটনার নিরপেক্ষ ও বিস্তারিত তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন। এদিকে হামলাটি কারা চালিয়েছে তা উল্লেখ না করে হাসপাতালে হামলা ‘যুদ্ধাপরাধের সমতুল্য’ বলে নিন্দা জানিয়েছেন জায়েদ রাদ।