২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জবির রাষ্ট্রবিজ্ঞান ’৮৩-৮৪ ব্যাচের পুনর্মিলনী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ওরা এখন আর কেউ ছাত্র-ছাত্রী নন। নানা পেশায় এখন প্রতিষ্ঠিত। তবুও তারা ফিরে গিয়েছিলেন ২৫ বছর আগের তারুণ্যে। আড্ডা, হৈচৈ, স্মৃতিচারণ, গানবাজনা, খাওয়া-দাওয়া সবই হয়েছে। আনন্দের জোয়ারে ভেসেছেন পুরনো বন্ধুদের পুনর্মিলনীতে। আবেগ-উচ্ছ্বাসে নতুন করে বরণ করেছেন একে অপরকে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ১৯৮৩-৮৪ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র-ছাত্রীদের মিলন মেলা বসেছিল এই পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে। দীর্ঘ ২৫ বছর আগে এরা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে সম্মানসহ স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নিয়ে নেমেছেন জীবন যুদ্ধে। ব্যবসায়ী, শিক্ষক, সাংবাদিক, বিচারক, আইনজীবী, পুলিশ, ব্যাংকার কিংবা সরকারী-বেসরকারী চাকরিসহ নানা পেশায় এরা নিয়োজিত। কর্মস্থল ও সংসার নিয়ে ব্যস্ত সবাই। সীমিত পর্যায়ে কিছু যোগাযোগ থাকলেও অধিকাংশ বন্ধুর সঙ্গেই দেখা হয়নি গত ২৫ বছর। এদের মধ্যেই কয়েকজন উদ্যোগী হয়ে এই পুনর্মিলনীর আয়োজন করেন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর কলাবাগানের এক বাসায় বসে এই আড্ডা। অর্ধ শতাধিক সহপাঠি উপস্থিত হন অনুষ্ঠানে। ছাত্রাবস্থায় এরা ছিলেন এক প্রজন্ম। এখন দুই কিংবা তিন প্রজন্মের প্রতিনিধি। অনেকেই সঙ্গে করে নিয়ে আসেন তাদের স্বামী/স্ত্রী ও সন্ত্রানদের। নতুন করে পরিচয় হয় একে অপরের সঙ্গে। দীর্ঘ দিনের জমে থাকা এত কথা যেন শেষ হতে চায় না। চলে কিছু আনুষ্ঠানিকতাও। শুরুতে শুভেচ্ছা বিনিময়। থেমে থেমে আমন্ত্রিত অতিথি ও সহপাঠিদের অংশগ্রহণে সঙ্গীত পরিবেশন। স্বামী-স্ত্রী ও সন্তানদের পরিচয় পর্ব। নিজেদের বর্তমান পরিচয় এবং কিছুটা স্মৃতিচারণ। এর মধ্যেই চলে খাবার দাবার। একটি বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ জসিম আয়োজন করেন সবকিছুর। প্রাণবন্ত আড্ডায় সময় গড়িয়ে যায় দ্রুত। রাত গভীর হয়। একসময় সবাইকে বিদায় নিতে হয়।