২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ফোরামের নেপাল কনভেনশন শুরু ৭ অক্টোবর

স্টাফ রিপোর্টার ॥ অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য অবকাঠামো প্রতিপাদ্য নিয়ে নেপালের কাঠমন্ডুতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে চার দিনব্যাপী সার্ক ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ফোরাম, এসডিইএফ সম্মেলন। আগামী ৭ থেকে ১০ অক্টোবর এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এ সময় কনভেনশন’১৫ ও ১৪ তম অ্যাপেক্স বডি সভাও অনুষ্ঠিত হবে। কনভেনশনে স্বাগতিক নেপাল ছাড়াও সার্কভুক্ত বাংলাদেশ, শ্রীলংকা, ভারত, ভূটান, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও মালদ্বীপের প্রতিনিধিবৃন্দ যোগদান করবেন।

সোমবার ঢাকার কাকরইলের আইডিইবি ভববে এক সংবাদ সম্মেলনে এসডিইএফ জেনারেল ও আইডিইবি’র সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো: শামসুর রহমান লিখিত বক্তব্যে এসব তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ৮ অক্টোবর স্থানীয় সময় কাঠমন্ডুর প্রাজ্ঞভবনে সম্মেলনের অনুষ্ঠানিক উদ্ভোধন করবেন নেপালের মহামান্য রাষ্ট্রপতি ড. রাম রবন উদেব। ৪ দিন ব্যাপী কনভেনশন ও ১৪ তম অ্যাপেক্স বডি সভার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম ৭ অক্টোবর স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬ টায় আগত অতিথিবৃন্দকে অভ্যর্থনা জানানোর মধ্য দিয়ে শুরু হবে। সন্ধ্যা ৭ টা ৪৫ মিনিটে এডভাইজারি কাউন্সিল, স্ট্যান্ডিং কিমিটি, টেকনিক্যাল কমিটি, এবং টেকনোলজি সেন্টার কমিটির মধ্যে পারস্পরিক আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, সার্কভুক্ত এ অঞ্চলের উন্নয়নের পথে প্রধান প্রতিবন্ধক হচ্ছে দরিদ্র্যতা। দারিদ্র্যের এ গন্ডি থেকে ১৮০ কোটি মানুষকে মুক্ত করতে হলে বিজ্ঞচিত রাজনীতির সন্নিবেশ ঘটাতে হবে। রাজনীতির অন্তর্নিহিত শক্তি হতে হবে মানবিক এবং প্রযুক্তিভাবনাযুক্ত। মানবতা পাশ কাটিয়ে যেমন সুষম উন্নয়ন হয় না, তেমনি তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে প্রযুক্তিগত চেতনাকে বাদ দেওয়া যায় না। প্রযুক্তির যথাযথ ব্যবহার ও আঞ্চলিক পর্যায়ে প্রযুক্তি বিনিময় সহজীকরণের জন্য সার্কভুক্ত দেশসমূহের রাষ্ট্রপ্রধানের নিকট ইঞ্জিনিয়ার নেতৃবৃন্দ যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের আবেদনও জানান। এসময় তারা ক্ষুধা, দারিদ্রমুক্ত পরিবেশে অন্যান্য অঞ্চলের মানুষের সাথে প্রতিযোগিতা করে বিশ্ব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কর্মনৈপুন্যতার স্বাক্ষর রাখার দৃঢ় প্রতিজ্ঞাও ব্যক্তও করেন।

আইডিইবি’র সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এ কে এম হামিদ বলেন, সরকার ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। এ প্রবৃদ্ধি অর্জন অবশ্যই নিয়ম নীতির মধ্য দিয়ে হতে হবে। দক্ষতার মধ্য দিয়ে উৎপাদন ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে হবে। স্থিতিশীল উন্নয়নের মধ্য দিয়ে সঠিক কর্মপরিকল্পনায় ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করাও সম্ভব।

শামসুর রহমান সংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ইঞ্জিনিয়ার ও ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়াররা অনেক ক্ষেত্রে সমতুল্য হয়ে পড়ছে। উপরের দিকে পদ বৃদ্ধি করা হচ্ছে, নীচের দিকে তেমন কোন উন্নয়ন হচ্ছে না। বহুবার সরকারের কাছে এ বিষয়ে আবেদন জানিয়েছি, কিন্তু তারা এ বিষয়ে কোন কর্ণপাত করেন নি।

কাঠমন্ডুতে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে যোগদানের উদ্দেশ্যে এসডিইএফ’র কো-চেয়ারম্যান এবং আইডিইবি’র সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এ কে এম হামিদ এবং এসডিইএফ-এর সেক্রেটারী জেনারেল ও আইডিইবির সাধারণ সম্পাদক মো: শামসুর রহমানের নেতুত্বে ১৪ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় ভারতের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ ত্যাগ করবেন।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আইডিইবি’র সহ-সভাপতি নীহার রঞ্জন মন্ডল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফজলুর রহমান খান, শিক্ষা ও প্রশিক্ষক সম্পাদক মো: ইদরীস আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক মো: আতিয়ার রহমান, প্রকাশনা সম্পাদক মো: কামরুজ্জামান নয়ন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মো: ফজলুল হক মল্লিক, আইডিইবি ঢাকা জেলার সভাপতি মো: খবির হোসেন, এসডিইএফ’র লিয়াজোঁ অফিসার মো: শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।