২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পালমিরায় আরও একটি প্রাচীন স্থাপনা ধ্বংস করল আইএস

ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গীরা সিরিয়ার প্রাচীন নগরী পালমিরা দু’হাজারের বছর পুরনো ঐতিহ্যবাহী আরও একটি স্থাপনা ধ্বংস করে দিয়েছে। ইউনেস্কো ঘোষিত গুরুত্বপূর্ণ প্রাচীন নিদর্শনের অন্যতম এই খিলানটি রোমান বিজয় উদ্যাপনের অংশ হিসেবে সমাদৃত হয়ে আসছিল। খবর বিবিসির।

পালমিরার একজন মানবাধিকারকর্মী মোহাম্মদ হাসান আল-হোমসি সোমবার জানান, পালমিরার বিজয় তোরণ বলে পরিচিত ওই প্রাচীন স্থাপনা গুড়িয়ে দিয়েছে আইএস। যুক্তরাজ্যভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস বলেছে, বিজয় তোরণ নামে ওই প্রাচীন স্থাপনা যে ধ্বংস হয়েছে বিভিন্ন সূত্র এটি নিশ্চিত করেছে । দু’হাজার বছর আগে নির্মিত বেল মন্দিরটি গোড়াতে ছিল রোমান যুগের একটি স্থাপত্যশিল্প। সিরিয়ার পুরাতত্ত্ব বিভাগের পরিচালক মামুন আবদুল করিমও এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন এবং তিনি বলেছেন, পালমিরার নিয়ন্ত্রণ পুরোপুরি আইএসের দখলে, তাঁর ভাষায় শহরটি ধ্বংস হয়ে গেছে।

এর আগে পালমিরা নগরীর আরও দুটি প্রাচীন স্থাপনা ধ্বংস করে আইএস জঙ্গীরা। ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকাভুক্ত পালমিরা গত মে মাসে দখল করে নেয় আইএস। তখনই আশঙ্কা করা হয়েছিল, আইএস জঙ্গীরা হয়ত জাতিসংঘের বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানগুলো ধ্বংস করে ফেলবে। রোমান স্থাপত্যের নিদর্শনবাহী পালমিরা মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক স্থানগুলোর অন্যতম।

গিনিতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে সংঘর্ষ ॥ নিহত এক, আহত ৮০

গিনিতে আগামী সপ্তাহে অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে উত্তেজনা বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ক্ষমতাসীন দল ও বিরোধী কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে কমপক্ষে একজন নিহত ও ৮০ জনেরও বেশি আহত হয়েছে। খবর এএফপির

গিনিতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ভয়াবহ সংঘর্ষ শনিবার রাতে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ন’জেরেকোরে নগরীতে সংঘর্ষের পর সেখানে কারফিউ জারি করে কর্তৃপক্ষ। আগামী ১১ অক্টোবরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে দ্বিতীয় বারের মতো বড় ধরনের এ সহিংসতা হলো। মেডিক্যাল বিষয়ক দাতব্য সংগঠন আলিমাস গিনি মিশনের প্রধান অলিভিয়ের ভ্যান ইল রবিবার বলেন, ‘গুলিতে বা পাথরের আঘাতে ৮০ জনেরও বেশি আহত হয়েছে। গিনি রেডক্রসের সঙ্গে কর্মরত আমাদের দল আহতদের সেবা দিতে ন’জেরেকোর আঞ্চলিক হাসপাতালে মেডিক্যাল টিমকে সহায়তা করছে।

নির্বাচিত সংবাদ