২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চিকিৎসায় নোবেল পেলেন চীনা নারীসহ তিন বিজ্ঞানী

চিকিৎসায় নোবেল পেলেন চীনা নারীসহ তিন বিজ্ঞানী

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ পরজীবীজনিত সংক্রমণ মোকাবেলায় দুটি যুগান্তকারী আবিষ্কারের জন্য এ বছর চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পেলেন তিন জন। এরা হলেন আয়ারল্যান্ডের উইলিয়াম সি ক্যাম্পবেল, জাপানের সাতোশি ওমুরা এবং চীনের ইউইউ তু। ক্যাম্পবেল ও সাতোশি মানবশরীরে পরজীবী গোলকৃমির সংক্রমণ নিরাময়ের ওষুধ এবং ইউইউ তু ম্যালেরিয়া চিকিৎসায় নতুন ধরনের থেরাপি আবিষ্কারের জন্য এই পুরস্কার পেলেন। সোমবার নোবেল কমিটির চিকিৎসা বিজ্ঞান বিষয়ক প্রধান প্রফেসর আরবান লেন্ডাল জয়ীদের নাম ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, তাদের এই আবিষ্কার বিশ্বব্যাপী কোটি কোটি মানুষের জীবন পাল্টে দিয়েছে। খবর বিবিসি, গার্ডিয়ান ও হাফিংটন পোস্ট অনলাইনের।

সবচেয়ে বড় কথা, এসব মানুষের বেশিরভাগই বাস করে বিশ্বের দরিদ্রতম দেশগুলোতে। ম্যালেরিয়ার মতো মশাবাহিত রোগে প্রতি বছর সারাবিশ্বে সাড়ে চার লাক্ষেরও বেশি মানুষ মারা যায়। আরও শত শতকোটি মানুষ এই সংক্রমণের ঝুঁকিতে থাকেন। বিশ্বের মোট জনসংখ্যার এক-তৃতীয়াংশই পরজীবীবাহিত রোগে আক্রান্ত হতে পারেন। চীনের ইউইউ তু হলেন বিশ্বের ১৩তম এবং প্রথম চীনা নারী যিনি চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পেলেন। ৮৪ বছর বয়সী তু বর্তমানে বেজিংয়ের চায়না একাডেমি অব ট্রাডিশনাল মেডিসিনে কর্মরত আছেন। তার স্বামী এজকন অবসরপ্রাপ্ত কারখানা শ্রমিক। তাদের দুটি মেয়ে রয়েছে।

অপরদিকে উইলিয়াম সি ক্যাম্পবেল নিউজার্সির ড্রিউ বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুজীব বিজ্ঞানী এবং সাতোশি ওমুরা জাপানের কিতাসাতু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক হিসেবে কাজ করছেন।

নোবেল পুরস্কারের অর্থমূল্য বাবদ ৮০ লাখ সুইডিশ ক্রোনারের অর্ধেক পাবেন উইলিয়াম সি ক্যাম্পবেল ও সাতোশি ওমুরা। আর বাকি অর্ধেক পাবেন ইউইউ তু। আগামী ১০ ডিসেম্বর সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হবে।

মঙ্গলবার পদার্থ, বুধবার রসায়ন, বৃহস্পতিবার সাহিত্য, শুক্রবার শান্তি এবং ১২ অক্টোবর সোমবার অর্থনীতিতে এবারের নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে।

নির্বাচিত সংবাদ