২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রধানমন্ত্রীর হোটেলে ক্ষেপণাস্ত্র

  • এডেনে হুতি বিদ্রোহীদের হামলা, হতাহত ১০

ইয়েমেনের সুন্নি প্রেসিডেন্ট আব্দু হাদি মনসুর হাদি সরকারের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী খালেদ বাহাহ-র ব্যবহার করা এডেন শহরের কসর হোটেলে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হয়েছে। পাশাপাশি উপসাগরীয় আরব দেশগুলোর জোট বাহিনীর কম্পাউন্ডেও হামলা চালানো হয়েছে বলে মঙ্গলবার জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

এসব হামলায় ১০ জন নিহত অথবা আহত হয়েছেন বলে অসমর্থিত বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। খবর বিবিসি ও ওয়েবসাইটের।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী বাহাহ ও অন্যান্য কর্মকর্তারা অক্ষত আছেন। জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফেরার পর থেকে প্রেসিডেন্ট হাদি সৌদি আরবে আছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। প্রাথমিক প্রতিবেদনগুলোতে নিক্ষিপ্ত মিসাইলগুলোকে রকেটচালিত গ্রেনেড বলা হয়েছে। ট্যুইটারে পোস্ট করা ভিডিও ফুটেজে কসর হোটেল থেকে বিশাল আগুনের শিখা উঠতে ও পরে ঘন কালো ধোঁয়ার কুণ্ডুলী উঠতে দেখা গেছে।

হোটেলের গেট লক্ষ্য করে মিসাইল ছোড়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এক স্থানীয় বাসিন্দা। দ্বিতীয় আর একটি মিসাইল হোটেলে কাছাকাছি বিস্ফোরিত হয়েছে এবং তৃতীয় আরেকটি এডনের বুরাইকহ এলাকায় উপসাগরীয় আরব জোট বাহিনীর কম্পাউন্ডে বিস্ফোরিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। হামলাটি শিয়া হুতি বিদ্রোহীরা বা তাদের মিত্র সাবেক প্রেসিডেন্ট আলি আব্দুল্লাহ সালেহর অনুগত সেনারা চালিয়েছেন বলে মন্তব্য করে হামলার নিন্দা করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। এক ট্যুইটার বার্তায় আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনওয়ার গারগাশ বলেছেন, “এই হামলার আবার প্রমাণ হলো, সালেহ ও হুতিরা ইয়েমেনের ধ্বংস চায়।”

স্থানীয় সংবাদপত্র এডেন আল-ঘাদ জানিয়েছে, হামলার পর ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী বাহাহ এডেনে অবস্থান করবেন বলে দৃঢ় প্রত্যয় জানিয়েছেন। গত কয়েক সপ্তাহে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদ থেকে হাদি সরকারের কর্মকর্তারা এডেনে ফিরে আসার পর থেকে এই হোটেলটিতে অবস্থান করে কার্যক্রম শুরু করেছিলেন, আর আরব আমিরাতের সেনারা হোটেলটির নিরাপত্তা দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন। জুলাইতে হাদি অনুগতরা ও আরব জোটবাহিনী শহরটি থেকে হুতিদের হটিয়ে দিয়েছিল।