২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এক এসএমএসেই হ্যাকিং সম্ভব বলছেন স্নোডেন

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ নিতান্ত সাধারণ একটি এসএমএস। ফোনে আসা মাত্রই খুলে পড়লেন আপনি। ব্যাস। চুরি গেল আপনার সাধের ফোন! এবার ওই ফোনটি খোলা-বন্ধ হোক বা তথ্য চুরি সবই নিয়ন্ত্রণ করবেন অন্য কেউ। অর্থাৎ এক এসএমএসেই হ্যাক হয়ে যাবে আপনার ফোন কি ভাবে জানেন? সৌজন্যে ‘স্মুর্ফ’ নামে একটি প্রকল্প। আমেরিকার এনএসএ-র সহোদর ব্রিটেনের জিসিএইচকিউ-এর হাতে আছে এমনই ভয়ানক প্রযুক্তি। সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যমকে এ কথা জানালেন এ্যাডওয়ার্ড স্নোডেন। বিশ্বব্যাপী এনএসএ-র গুপ্তচরবৃত্তির কারণে তিনি শিরোনামে এসেছিলেন কয়েক বছর আগে। মার্কিন সরকারের চোখে আসামি স্নোডেন এখন আত্মগোপন করে রয়েছেন রাশিয়ায়। এ খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

প্রথম থেকেই স্নোডেন জানিয়েছিলেন, এনএসএ একা নয়, প্রায় একই কাজ করছে ব্রিটেনের জিসিএইচকিউ-ও। সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যমে আরও সবিস্তারে সেই কাজ ব্যাখ্যা করেছেন স্নোডেন। জানিয়েছেন জিসিএইচকিউ-এর ‘স্মুর্ফ’ নামে এক প্রকল্পের কথা যা মূলত স্মার্টফোনের থেকে তথ্য চুরিতে ব্যবহার করা হয়।

এই প্রকল্পে বিশেষ প্রযুক্তিতে একটি এসএমএস পাঠিয়েই আপনার ফোনের দখল নেন জিসিএইচকিউ-এর গুপ্তচররা। আপনার ফোনকে দূর থেকে খোলা, বন্ধ করা থেকে শুরু করে গোপনে ফোনের মাইক্রোফোনকে চালু করে দেয়া সবই সম্ভব করে ‘স্মুর্ফ’। সবটাই হবে আপনার অজান্তে।

এ্যাওডয়ার্ড স্নোডেন মুখ না খুললে অত্যন্ত গোপন এই কাজ সম্পর্কে সাধারণ মানুষের কোন ধারণাই থাকত না। এনএসএ-র হয়ে কর্মরত স্নোডেন সেই তথ্য সামনে এনে আলোড়ন ফেলে দিয়েছেন। কিভাবে আমেরিকারসহ বিশ্বের নানা দেশে এনএস-এর জাল বিছিয়ে আছে, কি ভাবে ব্যক্তিগত তথ্য সরকারের ভাঁড়ারে জমা পড়ছে তা সবিস্তারে ব্যাখ্যা করেন তিনি। তবে বিশ্বজোড়া বিতর্কের মাঝে এ নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে ব্রিটিশ সরকার।