২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চট্টগ্রামে শিশু গৃহকর্মীর মৃত্যু ॥ আটক চার

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ নগরীর চকবাজার থানার বাগমনিরাম এলাকায় একটি ভবনের ফটকে পাওয়া গেছে এক শিশু গৃহকর্মীর লাশ। রহস্যজনক এ মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে পুলিশ গ্রেফতার করেছে গৃহকর্তা, তার স্ত্রী এবং দুই সন্তানকে। বুধবার সকালে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে। পুলিশ জানায়, বাগমনিরাম এলাকায় ‘মহানগর টাওয়ার’ নামের একটি ভবনের গেটের সামনে মরদেহটি পাওয়া যায়। মুন্নী নামের এ মেয়েটির বয়স আনুমানিক ১০ বছর। সে ভবনটির ৫ম তলায় ব্যবসায়ী মনির আহমদের বাসায় কাজ করত। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মনির আহমদ, তার স্ত্রী হোসনে আরা বেগম ও তাদের দুই সন্তানকে আটক করা হয়েছে।

বগুড়ায় জামাই খুন

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস থেকে জানান, দুপচাঁচিয়া উপজেলায় শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে এসে মঙ্গলবার রাতে রবিজুল ইসলাম (৩৮) নামে এক ব্যক্তি খুন হয়েছে। তার বাড়ি নাটোরের সিংড়া উপজেলায়। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ লোকমান আলী নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে। পুলিশ জানায়, রবিজুল কয়েক দিন আগে উপজেলার চামরুল ইউনিয়নের মনগইত গ্রামে শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে আসে। মঙ্গলবার রাত সোয়া আটটার দিকে রবিজুল বাড়ির সামনে বের হলে দুর্বৃত্তরা তার ওপর হামলা চালায় এবং উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে ফেলে রেখে যায়। গুরুতর অবস্থায় তাকে বগুড়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করার পর রাতেই সে মারা যায়।

ঠাকুরগাঁওয়ে ছাত্রীর লাশ উদ্ধার

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঠাকুরগাঁও থেকে জানান, সদর উপজেলার খলিশাকুড়ি গ্রামের কলেজ ছাত্রী রিক্তা আকতার (১৭) নিখোঁজের ১৫ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুরে ওই গ্রামের কবর স্থানের পাশে একটি ডোবা থেকে লাশ উদ্ধার করে।

রিক্তা পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার পাথরাজ মহাবিদ্যালয়ের একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী। খলিশাকুড়ি গ্রামের জামাল উদ্দিনের মেয়ে।

বাউফলে অভিনব কায়দায় মা ইলিশ গন্তব্যে যাচ্ছে

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল, ৭ অক্টোবর ॥ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে তেঁতুলিয়া নদী থেকে শিকার করা মা ইলিশ এখন অভিনব কায়দায় পৌঁছে দেয়া হচ্ছে নির্দিষ্ট গন্তব্যে। এক শ্রেণীর অসাধু লোকজন মোবাইল ফোনে কন্ট্রাকট করে ট্রাভেলস ব্যাগে ভরে মা ইলিশ পৌঁছে দিচ্ছেন। ওই ইলিশ অপেক্ষাকৃত দামে অনেক কম হওয়ায় ক্রেতারা কেনার আগ্রহ দেখাচ্ছেন। একাধিক সূত্রে জানা গেছে, সরকারী নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে অসাধু জেলে মা ইলিশ শিকারে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

অভিযোগ রয়েছে, অসাধু জেলেদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সাহায্য করছে স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী। তারা কোস্টগার্ড ও প্রশাসনকে ম্যানেজ করে জেলেদের নদীতে পাঠাচ্ছেন মা ইলিশ শিকার করতে।