২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইয়েমেনের হোটেলে হুতি বিদ্রোহীদের রকেট হামলায় বাংলাদেশী যুবক নিহত

  • শোকার্ত পরিবার চায় লাশ

শেখ আব্দুল আওয়াল, গফরগাঁও থেকে ॥ ইয়েমেনের এডেন শহরের কসর হোটেলে হুতি বিদ্রোহীদের রকেট হামলার ঘটনা বাংলাদেশী এক যুবক নিহত হয়েছে বলে জানায় তার পরিবারের লোকজন। তার বাড়ি ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার মহির খারুয়া গ্রামে। নিহত এই যুবকের নাম আনছারুল হক চম্পা। সে মহিরখরুয়া গ্রামের মৃত নইমুদ্দিন আহম্মেদের ছোট ছেলে। এডেন হোটেলে হুতি বিদ্রোহীদের রকেট হামলায় নিহত যুবকের পরিবার সূত্রে জানা যায়, ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে আল-বাগদাদ দুবাই কোম্পানিতে চাকরিরত অবস্থায় সারজা ন্যাশনাল টিমে চাকরি করত সে। এডেন হোটেলে হামলা নিহত যুবকের বড় ভাই কাঞ্চন জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে আনছারুল হক চম্পার বন্ধু সোহেল দুবাই থেকে ফোন করে বলে, বাংলাদেশ সময় ১২টার দিকে ইয়েমেনের ইডেন শহরে কসর হোটেল হুতি বিদ্রোহীদের হামলার ঘটনায় চম্পা মারা গেছে। কাঞ্চন বলেন, তার ভাই তিন মাস আগে দুবাই থেকে ইথিওপিয়া যায়। সেখান থেকে দেড় মাস আগে ইয়েমেনের ইডেন শহরের কসর হোটেলে সারজা ন্যাশনাল টিমের সঙ্গে চাকরি শুরু করে। রকেট হামলায় নিহত আনছারুল হক চম্পার স্ত্রী জেসমিন (৩২) বলেন, ঈদের পরে বুধবার আমার স্বামীর সঙ্গে তার কথা হয়েছিল। তখন সে জানায়, ইয়েমেনে কসর হোটেলে ন্যাশনাল টিমের সঙ্গে আছি। এই শহরে শুধু মারামারি। জানি না আল্লাহ কপালে কি লিখে রেখেছেন। যদি বেঁচে থাকি তাহলে দেশে এসে নতুন ঘর তৈয়ার করব। আমার স্বামীর নতুন ঘর এখন কোথায় তা আল্লাই জানে। তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটাই অনুরোধ আমার স্বামীর লাশটি দেশে আনার ব্যবস্থা করুন।