১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জামালপুরের পাট পণ্যমেলায় কোটি টাকার বাণিজ্য

নিজস্ব সংবাদদাতা, জামালপুর ॥ জামালপুরে পাঁচ দিনব্যাপী বহুমুখী পাট পণ্যমেলা কোটি টাকার বাণিজ্যের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হলো। দেশব্যাপী ঐতিহ্যবাহী সোনালি আঁশ পাটকে জনপ্রিয় করতে ও পাটের বহুবিধ ব্যবহার সম্পর্কে গণসচেতনতা বাড়াতে বাংলাদেশ সরকারের পাট মন্ত্রণালয়ের জুট ডাইভারসিফিকেশন সেন্টারের আয়োজনে এবং জামালপুর জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় ২ অক্টোবর শুক্রবার থেকে ৬ অক্টোবর মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত চলে বহুমুখী পাট পণ্যমেলা। মেলায় ঢাকাসহ দেশের বেশ কয়েকটি জেলা থেকে উদ্যোক্তারা তাদের উৎপাদিত নিজ নিজ পাটসামগ্রীর পণ্য নিয়ে মেলায় অংশগ্রহণ করে। ক্রেতাদের কাছে পাট পণ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা বলেন, জামালপুরে আমরা পাট পণ্যে বহুবিধ ব্যবহার সম্পর্কে জানতাম না। মেলায় পাট দিয়ে তৈরি এমন কিছু পণ্যসামগ্রী এসেছে যা আগে কখনও দেখিনি। সে সব পণ্যসামগ্রীর মধ্যে পাটের তৈরি গামছা, পাঞ্জাবির কাপড়, ওড়না, জুতো, ভ্যানিটিব্যাগ, স্কুলব্যাগ, লেডিসব্যাগ, পার্টস, মোবাইল ব্যাগ, কুশন কভার, মানিব্যাগ, ফাইল কভার, ল্যাপটপ ব্যাগ, অফিস ব্যাগ, ক্যামেরা ব্যাগ, কবি ব্যাগসহ নানা ধরনের সব পাট পণ্য। পাট দিয়ে যে এত কিছু তৈরি হয় তা কোনদিন কল্পনাও করিনি। তারা আরও বলেন, দেশব্যাপী প্রতিবছর পাট পণ্যমেলার আয়োজন হলে এ পণ্যের ব্যবহার বাড়বে।

নিরাপত্তার কারণে বায়ার্স মিটিং স্থগিত

নিরাপত্তাজনিত কারণ দেখিয়ে পোশাকশিল্প মালিকদের সঙ্গে নির্ধারিত বৈঠক স্থগিত করেছে দেশে অবস্থানরত বিভিন্ন বিদেশী ক্রেতা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের সংগঠন ‘বায়ার্স ফোরাম’। দেশীয় পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ এ তথ্য জানিয়েছে। নিরাপত্তাজনিত কারণ দেখিয়ে বিজিএমইএকে চলতি মাসের নির্ধারিত বৈঠক স্থগিতের কথা জানান এইচএ্যান্ডএম বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার রর্জার হুবার্ট। গত সোমবার রাজধানীর গুলশানে এইচএ্যান্ডএম কার্যালয়ে এ বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। -অর্থনৈতিক রিপোর্টার

শিল্পের কর্মপরিবেশ উন্নয়নে ডেনমার্ক পাশে থাকবে

তৈরি পোশাকসহ বাংলাদেশের অন্যান্য শিল্প-কারখানার কর্মপরিবেশ উন্নয়নে ডেনমার্কের সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন ডেনমার্কের কর্মসংস্থানমন্ত্রী জন নিরগার্ড লেসেন। ডেনমার্কের রাজধানী কোপেন হেগেনে গত মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর সঙ্গে বৈঠককালে সে দেশের কর্মসংস্থানমন্ত্রী এ আশ্বাস দেন। ডেনমার্কের কর্মসংস্থানমন্ত্রী জানান, তৈরি পোশাক শিল্প খাতে ৫০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রফতানির লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বাংলাদেশকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দেয়া হবে। বৈঠকে বাংলাদেশে সবুজ শিল্পায়নে ডেনমার্কের সহায়তাসহ দ্বিপাক্ষিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। মার্চে ঢাকায় শুরু হওয়া ‘ডেনমার্ক-বাংলাদেশ কৌশলগত খাতে সহায়তা পরিকল্পনা’ বাস্তবায়নের বিভিন্ন দিক আলোচনায় স্থান পায়। বৈঠকে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু জানান, শিল্প-কারখানায় নিরাপদ কর্মপরিবেশ ও শ্রমিকদের স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তা বিধানে বাংলাদেশ সরকার কাজ করছে। -অর্থনৈতিক রিপোর্টার

এই মাত্রা পাওয়া