১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জনপ্রশাসনে ঢাকা দুই সিটির প্রশাসকদের অনিয়মের তদন্ত রিপোর্ট

  • সংসদ কমিটির অসন্তোষ

সংসদ রিপোর্টার ॥ ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে নির্বাচিত মেয়রদের আগে প্রশাসকদের দায়িত্ব পালনের সময় বিভিন্ন অনিয়মের বিষয়ে সংসদীয় কমিটিকে পাশ কাটিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কাছে প্রতিবেদন দাখিলে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। সংসদীয় কমিটির সুপারিশে অনিয়ম তদন্ত করা হলেও প্রতিবেদন কেন কমিটিকে না দিয়ে মন্ত্রণালয়ে দেয়া হয়েছে, সে বিষয়টি জানতে চেয়েছে কমিটি। তাছাড়া কমিটি তদন্ত প্রতিবেদনটি অসম্পূর্ণ উল্লেখ করে তা পুনরায় তদন্ত করে কমিটির কাছে প্রতিবেদন দিতে বলেছে।

জাতীয় সংসদে বুধবার সংসদীয় কমিটির বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। কমিটির সভাপতি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্ বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। কমিটির সদস্য আলহাজ এ্যাডভোকেট মোঃ রহমত আলী, সাবের হোসেন চৌধুরী, ফজলে হোসেন বাদশা এবং বেগম রহিমা আকতার বৈঠকে অংশগ্র্রহণ করেন।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব আবদুল মালেক, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব এমএ কাদের সরকার, এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী শ্যামা প্রসাদ অধিকারী, ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে প্রশাসকদের দায়িত্ব পালনকালীন সিটি কর্পোরেশনের অনিয়ম নিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন প্রসঙ্গে আলোচনার সময় কমিটির সদস্যরা বলেন, গত ১৬ জুন কমিটির বৈঠকের সুপারিশেই অনিয়ম তদন্ত শুরু হয়। সেই হিসেবে কমিটিতেই আগে প্রতিবেদন পেশ করার কথা। অথচ স্থানীয় সরকার বিভাগ তদন্ত প্রতিবেদন কমিটিকে না দিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে জমা দিয়েছে। এছাড়া আগস্ট মাসের কমিটির বৈঠকে প্রশাসকদের মেয়াদকালে রাজস্ব আদায় নিয়ে একটি প্রতিবেদন জমা দেয় মন্ত্রণালয়। ওই প্রতিবেদনটিও অসম্পূর্ণ উল্লেখ করে ফেরত পাঠিয়েছে কমিটি। প্রতিবেদনে ১৭ জন প্রশাসকের মধ্যে নয়জনের বক্তব্য মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি শোনেনি।

বাজারে আসছে বিসিএসআইআরের হাই প্রোটিন আটা

বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের (বিসিএসআইআর) উদ্ভাবিত হাই প্রোটিন সমৃদ্ধ আটা স্থানীয় শিল্পোদ্যোক্তার নিকট বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদনের লক্ষ্যে ইজারা দেয়া হয়েছে। ৭ অক্টোবর সকালে বিসিএসআইআরের সম্মেলন কক্ষে ইজারা গ্রহীতার নিকট চুক্তিপত্র হস্তান্তর করেন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নজরুল ইসলাম। নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিপত্র স্বাক্ষর করেন পরিষদ সচিব মোঃ খলিলুর রহমান, এবং ইজারা গ্রহীতার পক্ষে মোঃ গোলাম রব্বানী, চেয়ারম্যান, বেনিসন ফুড প্রোডাক্টস লিমিটেড।

বিসিএসআইআরের দাবি, বাজারের যে কোন আটা হতে এ আটা দ্বিগুণ প্রোটিন সমৃদ্ধ যা মানব শরীরের প্রোটিন গঠনে এবং ক্যান্সার, কোলস্টেরোল, ওস্টিওপোরোসিস এবং ম্যাল-নিউট্রেশনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাসহ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। শীঘ্রই বাজারে “বেনিসন হাই প্রোটিন আটা ” নামে পাওয়া যাবে। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সৈয়দা আনোয়ারা বেগম, সদস্য (উন্নয়ন), এবং বিসিএসআইআর-এর সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞানী কর্মকর্র্তাবৃন্দ ও ইজারা গ্রহীতা প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ও অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ। -বিজ্ঞপ্তি