১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কেক বানিয়ে কিস্তিমাত

কেক বানিয়ে কিস্তিমাত

গ্রেট ব্রিটিশ বেক অব প্রতিযোগিতায় শিরোপা জয়ী হয়েছিলেন ব্রিটেনের নাদিয়া হুসেইন। কিন্তু ট্রফিটি লুকিয়ে রেখেছিলেন কয়েক মাস। শেষ পর্যন্ত বিবিসি ব্রেকফাস্ট অনুষ্ঠানে সুখবরটি তিনি ফাঁস করেন।

নাদিয়া বলেন, ‘জুনের শেষ দিকেই ট্রফিটি আমি পেয়েছিলাম। কিন্তু সেটি কাগজে মুড়ে, প্রথমে রেখে দিয়েছিলাম একটি বাক্সে। তারপর সেখান থেকে একটু একটু করে বড় আকারের বাক্সে সেটি ঢুকিয়ে রাখি। বড় বাক্সটি সুটকেসে ভরে শোবার বিছানার নিচে রেখে দিয়েছিলাম।’ কেক বানিয়ে এত বড় পুরস্কার পাওয়াকে জীবনের সবচেয়ে বড় অর্জন বলে মন্তব্য করেছেন তিন সন্তানের জননী ৩০ বছর বয়সী নাদিয়া হুসেইন। বুধবার রাতে প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বটি যখন টিভিতে দেখানো হচ্ছিল, সেখানে নাদিয়াকে শিরোপা জয়ী ঘোষণা করা হয়। তিনি এ পর্বটি দেখেছেন বাবা-মা, ভাই-বোন ও বাচ্চাদের সঙ্গেই। যদিও নাদিয়া বলছেন বাচ্চাদের তিনি আগেই শিখিয়ে রেখেছিলেন কিভাবে বিষয়টি গোপন রাখতে হবে। তবে তার বাবা-মা কিংবা ভাই বোন চূড়ান্ত ঘোষণার আগে জানতে পেরেছিলেন কি না তা জানা যায়নি। এক প্রশ্নের জবাবে নাদিয়া বলেন তাদের নিজস্ব সংস্কৃতিতে খাওয়ার পরে মিষ্টান্ন খাওয়ার তেমন একটা চল নেই। কিন্তু বড় হয়ে যখন স্কুলে গিয়ে দেখলেন যে খাবারের পরে মিষ্টি খাওয়ার রীতি সেখানে চালু রয়েছে। তখনই কেক বানানোর বিষয়টি তার ভাবনায় আসে। হোম ইকনোমিক্সের শিক্ষক নাদিয়ার কেক সম্পর্কে বলেছিলেন, ‘তুমি তো বেশ ভাল কেক বানাও।’ বাচ্চারা স্কুলে যাওয়ার পর অবসর সময়টি কেক বানানোর জন্যে নাদিয়া কাজে লাগাতেন। পরে রিয়ালিটি শোতে অংশগ্রহণের বিষয়টি তিনি চিন্তা করেন। বুধবার ফাইনাল পর্বে তিনি বিয়ের অনুষ্ঠানের বড় একটি কেক তৈরি করেন। যা তিনি তার নিজের বিয়ের গহনা দিয়ে সাজান। রান্নাবিষয়ক এই টেলিভিশন অনুষ্ঠানটি ব্রিটেনে বেশ জনপ্রিয়। ফাইনাল পর্বটি দেখতে ১ কোটি ৩৪ লাখ দর্শক টেলিভিশনের সামনে ছিলেন। এ পর্বটি এখন পর্যন্ত এ বছরের সবচেয়ে বেশি দেখা টেলিভিশন অনুষ্ঠানের মধ্যে একটি। চূড়ান্ত পর্বে তিনি ইয়ান কামিং এবং তমাল রায়কে হারান। -বিবিসি অনলাইন।