২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যেভাবে ঘুমাতে বলেন বিশেষজ্ঞরা

রাতে ঘুমানোর সময় আরামদায়ক পোশাক পরতে বলেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু কয়েকজন ঘুম বিশেষজ্ঞের মতে, নগ্ন হয়ে শোয়ার মধ্যে বেশ কয়েকটি স্বাস্থ্যকর সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। আমেরিকার ন্যাশনাল সিøপ ফাউন্ডেশন এক গবেষণায় নগ্ন হয়ে ঘুমানোর নানা সুবিধার কথা জানিয়েছে। নগ্ন ত্বক দেখলে মানুষের মধ্যে এক ধরনের বিশেষ অনুভূতির সৃষ্টি হয়। এর সঙ্গে যৌন উত্তেজনা, ভালো লাগা, আন্তরিকতা এবং অন্তরঙ্গতার অনুভূতি কাজ করে। আত্মবিশ্বাসও বেড়ে যায় বলে গবেষণায় প্রমাণ মেলে।

বিশেষজ্ঞ ড. সারাহ ব্রিউয়ার জানান, ঘুমানোর সময় দেহে পোশাক না থাকলে দেহের তাপমাত্রা সুষম থাকে। এতে ঘুম হয় সবচেয়ে আরামদায়ক। এতে খুব দ্রুত ঘুমও চলে আসে। ঘুম হয় গভীর। দেহের তাপমাত্রা কমে আসে বিধায় ঘুম জড়িয়ে আসে দেহে। পোশাক থাকা মানেই দেহের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাওয়া, যা মোটেও স্বস্তিকর নয়।

বিশেষজ্ঞ আরও বলেন, যে নারীরা নগ্ন হয়ে ঘুমান তাদের দেহে ছত্রাকের আক্রমণ কম ঘটে। বিশেষ করে গ্রীষ্মের সময় ঘুমের এই পদ্ধতি দারুণ উপকারী।

তাছাড়া বিবস্ত্র অবস্থায় দেহে টেসটোস্টেরন হরমোনের ক্ষরণ বৃদ্ধি পায়। দেহের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলে এই হরমোনের নিঃসরণ কমে যায়। দম্পতিরা নগ্ন হয়ে ঘুমালে তাদের মধ্যে আবেগী বন্ধন দৃঢ় হয় বলে জানান ড. ব্রিউয়ার। নগ্ন হয়ে বিছানায় গেলে নিজেকে স্বাধীনচেতা বলে মনে হয়। এতে মানুষ আরও বেশি আবেদনময়ী, উদ্দীপ্ত এবং প্রেমপূর্ণ হয়ে ওঠে।

যে সকল নারী মেনোপজে উপনীত হয়েছেন এবং যে পুরুষদের দেহে টেসটোস্টেরনের অভাব রয়েছে, তারা নগ্ন হয়ে ঘুমাতে গেলে দেহে কোন ধরনের প্রদাহ অনুভূত হয় না।

সূত্র : লাইফ সায়েন্স