২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঢাবি ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য্ বৃদ্ধি করতে ছাত্রলীগের উদ্যোগ

ঢাবি ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য্ বৃদ্ধি করতে ছাত্রলীগের উদ্যোগ

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার ॥ ক্যাম্পাসকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে এবং এর সৌন্দর্য্য বৃদ্ধির লক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা থেকে সব ধরনের ব্যক্তিগত বিলবোর্ড ও প্রচারপত্র সড়িয়ে ফেলার উদ্যোগ নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। শুক্রবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি ভবনের প্রায় অর্ধশতাধিক ব্যক্তিগত বিলবোর্ড, পোস্টার, ফেসটুন এবং ব্যানার খুলে ফেলে দিয়ে এই উদ্যোগের বাস্তবায়ন শুরু হয়।উল্লেখ্য সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে ব্যক্তিগত এসব প্রচারণাপত্রের উপস্থিতি আশংকাজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছিলো।

এই উদ্যোগের অংশ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবন, কার্জন হলসহ ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে ব্যক্তিগত সকল ধরনের ব্যানার ফেস্টুন না টাঙানো বা লাগানো জন্য অনুরোধ করা হয়েছে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি আবিদ আল হাসান জনকণ্ঠকে বলেন, ব্যক্তিগত প্রচারণায় ব্যবহৃত বিভিন্ন ধরনের বিলবোর্ড, ব্যানার, পোস্টার এবং ফেসটুন ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য্যকে ম্লান করে দেয়। আমরা আজ টিএসসি থেকে এসব উচ্ছেদের কাজ শুরু করেছি। এরপর কার্জনহল, কলাভবনসহ ক্যাম্পাসের বিভিন্ন রাস্তা-ঘাটেও উচ্ছেদ অভিযান চালানো হবে।

ছাত্রলীগ সাধারণ শিক্ষার্থীদের অধিকার এবং সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে সবসময় সচেতন উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়া, সুবিধা-অসুবিধার কথা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে জানাতে আমরা খুব শীঘ্রই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপকক্ষকে স্মারকলিপি প্রদান করবো। বিভিন্ন হলের ক্যানটিনের খাবারের মান ও শিক্ষার্থীদের সমস্যা নিয়ে সরিজমিনে ঘুরে ঘুরে সমাধান করা হবে।বিশ্ববিদ্যালয়কে এগিয়ে নিয়ে যেতে সকল সংগঠনকে একসাথে কাজ করার জন্যও আহ্বান জানান তিনি।

ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সহায়তা করতে ছাত্রলীগের বুথ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আগত শিক্ষার্থীদের সহায়তা করতে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে ১৫টি বুথ বসায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। এসব বুথে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলের ছাত্রলীগ কর্মীরা প্রয়োজনীয় তথ্য ও পরামর্শ দিয়ে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সহায়তা করেন। ছাত্রলীগের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে ভর্তিচ্ছু ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা। ভর্তিচ্ছু ছাত্রী উম্মে কুলসুম জানান, আমি আমার কলাভবনের মধ্যের সিটের অবস্থান খুঁজে পাচ্ছিলাম না, ছাত্রলীগের সহায়তা বুথ থেকে সাহায্য নিয়ে পরে সিট পেতে সহজ হয়।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া