২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কাজলী পিয়ালী বহুদিন পর ফিরে এসেছে যমুনায়

কাজলী পিয়ালী বহুদিন পর  ফিরে এসেছে যমুনায়

সমুদ্র হক ॥ কাজলী পিয়ালী। দুই সহোদরা। গড়ন কাছাকাছি। রঙের সামান্য পার্থক্য। ফর্সা ও উজ্জ্বল শ্যামলা। ওদের বাস যমুনায়। সব সময় থাকে না। সহজে দেখা মেলেও না। যমুনা তীরের লোকজন ওদের কত খোঁজে...। দিন কয়েক আগে বন্যার সময়টায় কাজলী পিয়ালীর আনন্দ দেখে কে! হার্ড পয়েন্টে বেড়াতে যাওয়া ভ্রমণপিয়াসীরা স্থানীয়দের কাছে জানতে চায় কাজলী পিয়ালী কি আছে! উত্তর একটাই, এই সময়ে ওদের দেখা পাবেন না। স্রোত দেখলে ওরা ক্লাসিক্যাল নাচে মেতে ওঠে। ওদের কাছে পেতে চাইলে জল কমে যাক তারপর। জল সামান্য কমলে হবে না। মৃদু ঢেউয়ের তালে ওরা তীরের কাছাকাছি আসে। তা না হলে একেবারে গভীরে। এই সময়টায় যমুনা তীরের মানুষ ওদের দেখা পেয়েছে। নাগালের মধ্যে আছে। নদী অনেকটা শান্ত। ভয়ও আছে সমুদ্রের লঘুচাপের। তবে শরত শেষে ও হেমন্তের শুরুতে নদী খুব একটা ফুলে-ফেঁপে ওঠে না। ঢেউ আরেক ছন্দে মেতে ওঠে। এই ছন্দেই কাজলী পিয়ালী মিটি মিটি হেসে তীরে এসে লুকোচুরি খেলে। অ-নে-ক সময় পর কাজলী পিয়ালীর দেখা পেয়েছে যমুনা পাড়ের জেলেরা। ওরা প্রায় হারিয়েই গিয়েছিল বিশেষ করে পিয়ালী। মৎস্য বিভাগের উপ-পরিচালক রাশেদুল হক জানালেন মিঠা পানির অনেক মাছ যেগুলো হারিয়ে যাচ্ছিল তা বিশেষ ব্যবস্থায় ফিরিয়ে আনা হচ্ছে। ইতোমধ্যে অনেক মাছ নদীতে এসেছে। যমুনার অতি সুস্বাদু পিয়ালী কাজলী মাছও ফিরে এসেছে। এই দুই মাছের নাম একে স্থানে একেক। তবে পিয়ালী কাজলী মিষ্টি নামেই পরিচিত। ওদের দেখা মিলছে, তাকিয়ে আছে ড্যাব ড্যাব করে। তবে দাম বেশি। প্রতি কেজি ৬শ’ টাকা। জেলেদের কথা- দুষ্টুমি ভরা এই মিষ্টি মাছকে কি সহজে ধরা যায়। দাম তো বেশি হবে। ভাতে মাছে বাঙালীর প্রিয় এই দুই মাছ অনেক দিন পর ফিরে এসেছে।