২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘বাঙালী হবে স্বাস্থ্যবান প্রতিদিন ডিম খান’

  • বিশ্ব ডিম দিবস পালিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাঙালী হবে স্বাস্থ্যবান, প্রতিদিন ডিম খান এই সেøাগানকে সামনে রেখে পালিত হলো ২০তম বিশ্ব ডিম দিবস। এ উপলক্ষে শুক্রবার এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় স্বল্পমূল্যে ডিমের উৎপাদন ও সরবরাহ নিশ্চিত করতে পোল্ট্রিকে করমুক্ত খাত হিসেবে ঘোষণার পাশাপাশি সরকারী ও বেসরকারী গণমাধ্যমে ডিমের প্রচারণা বাড়ানোর তাগিদ দেন পোল্ট্রি সংশ্লিষ্টরা।

সভায় বিপিআইসিসি-এর আহ্বায়ক মসিউর রহমান বলেন, বর্তমানে ডিমের উৎপাদন প্রায় ২ কোটি। এর মধ্যে বানিজ্যিকভাবে উৎপাদিত হয় প্রায় ৯৫ শতাংশ ডিম। ২০২১ সাল নাগাদ বাংলাদেশে ডিমের দৈনিক চাহিদা হবে প্রায় ৫০ থেকে ৮০ কোটি। তিনি বলেন, এশিয়ার দেশগুলোতে ডিমের চাহিদা ক্রমেই বাড়ছে। ২০১৪ সালে সারাবিশ্বে যে পরিমাণ ডিম পাড়া মুরগির সংখ্যা বেড়েছে তার প্রায় ৭০ শতাংশই বেড়েছে এশিয়াতে। এতে ধারণা করা হচ্ছে ২০১৫ সালে বিশ্বে উৎপাদিত মোট ডিমের প্রায় ৫৯ শতাংশই উৎপাদিত হবে এশিয়াতে। তিনি আরও বলেন, স্বাস্থ্যবিষয়ক জনসচেতনতা এবং আর্থিক সচ্ছলতা বৃদ্ধির কারণে বাংলাদেশে ডিমের চাহিদা অনেক বেড়েছে। কিন্তু ডিম সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণার কারণে এবং সঠিক প্রচার ও পরিকল্পনার অভাবে ডিমের কাক্সিক্ষত চাহিদা বাড়ানো সম্ভব হচ্ছে না বলে মনে করেন তিনি। এক্ষেত্রে গণমাধ্যমকে কার্যকরভাবে কাজে লাগানোর তাগিদ দেন তিনি।

বক্তারা বলেন, আমরা ডিম খাই গড়ে মাত্র ৪৫Ñ৫০টা অথচ জাতিসংঘে খাদ্য ও কৃষি সংস্থার মতে সুস্থ থাকার জন্য জনপ্রতি বছরে অন্তত ১০৪টি ডিম খাওয়া উচিত। এছাড়া ডিম অত্যন্ত পুষ্টিকর ও নিরাপদ খাদ্য। মাত্র ২টি ডিম নারীর দৈনিক প্রোটিন চাহিদার ১/৪ ভাগ পূরণ করতে পারে। তাই শুধু শর্করা কমিয়ে প্রতিদিন ডিম খেলে মাসে ৩ পাউন্ড ওজন কমানো সম্ভব। আধুনিক বিজ্ঞানের মতে সপ্তাহে ৪টি ডিম খেলে টাইপ টু ডায়াবেটিসের ঝুঁকি ৩৭ শতাংশ কমে যায়। সপ্তাহে ৬টি ডিম খেলে স্তন ক্যান্সারের সম্ভবনা ৪০% কমে যায়।

সভায় এফএও এর ন্যাশনাল কনসালট্যান্ট ড. নীতিশ চন্দ্র দেবনাথের সঞ্চলনায় মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি প্যথলোজির প্রফেসর ড. এএস মাহফুজুল বারী। সভায় বক্তব্য রাখেন বিপিআইসিসিয়ের যুগ্ম-আহ্বায়ক সামসুল আরেফিন খালেদ, প্রাণীসম্পদ অধিদফতরের মাননীয় মহাপরিচালক অজয় কুমার রায়, এফএও এর এ্যাডভাইজার হাসান আহমেদ চৌধুরী, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ এবং হেড অব মেডিসিন প্রফেসর ডাঃ মোঃ বিল্লাল আলম, শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকালটি অব ভেটেরিনারি এ্যান্ড এ্যানিমেল সায়েন্সের ডিন অধ্যাপক মোঃ মোফাজ্জল হোসেন প্রমুখ।

দিবসটি উপলক্ষে ঢাকা ছাড়া বিভিন্ন বিভাগে এবং ৬৪টি জেলায় র‌্যালি ও আলোচনা সভার আয়োজন করেছে বিপিআইসিসি।