২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মেসি-রোনাল্ডোকে পছন্দ নয় ক্লপের

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অবশেষে অনুমিতভাবেই ইংলিশ ক্লাব লিভারপুলের কোচ হয়েছেন জার্গেন ক্লপ। সাবেক জার্মান ফুটবলারকে বৃহস্পতিবার নিয়োগ দিয়েছে দ্য রেডসরা। সদ্যই বরখাস্ত হওয়া ব্রেন্ডন রজার্সের উত্তরসূরি হিসেবে কাজ করার সুযোগ পেয়েছে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন ৪৮ বছর বয়সী ক্লপ।

এরপর সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন বিস্ফোরক কথা। ক্লপ পরিষ্কার ভাষায় জানিয়েছেন, তার দলে লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর মতো ফুটবলারের প্রয়োজন নেই! বর্তমান দল নিয়েই লিভারপুলকে ভাল কিছু উপহার দেয়ার চ্যালেঞ্জের কথা জানিয়েছেন তিনি। চলমান ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে আট ম্যাচ শেষে মাত্র তিনটিতে জেতা রজার্স লিভারপুলে কিছু খেলোয়াড়ের চুক্তি নিয়ে সমালোচিত হন। তবে ক্লপ মনে করেন এই দলের মধ্যেই সাফল্যের উপাদান লুকিয়ে আছে। ক্লপ বলেন, এই দলের প্রতিভাময় আমি বিশ্বাস করি বলেই এখানে এসেছি। আমি দলটি দেখেছি এবং মনে করি, সবকিছুই ভাল। লিভারপুল যে বিশ্বের সেরা ক্লাব নয়, এটাও মানছেন ক্লপ। তবে সমস্যাগুলো দূর করে লিভারপুলকে সেরা বানাতে চান তিনি। আর এর জন্য হাতে যে রসদ আছে, তার ওপরই ভরসা করছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে তার ভাষ্য, আমি স্বপ্ন দেখার মানুষ নই। আমি রোনাল্ডো বা মেসির মতো খেলোয়াড়দের এক দলে পেতে চাই না। আমি বর্তমান দলটাই চাই। এখন আমরা কাজ শুরু করব। বাজে পারফর্মেন্সের কারণে ব্রেন্ডন রজার্সকে কোচের পদ থেকে বহিষ্কার করে লিভারপুল। এরপরই দ্য রেডসদের নতুন কোচের জন্য ক্লপ ও সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ কোচ কার্লো আনচেলত্তির নাম উঠে আসে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বরুশিয়া ডর্টমুন্ড কোচকেই বেছে নিয়েছে ইংলিশ ক্লাবটি। খেলোয়াড়ি জীবনের পুরোটাই জার্মান বুন্দেসলিগার ক্লাব মেইঞ্জের হয়ে কাটান ক্লপ। খেলেন ১৯৮৯ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত। ২০০১ সালেই তিনি শৈশবের ক্লাবের হয়ে কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করেন। এরপর ২০০৮-১৫ মৌসুম পর্যন্ত বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের কোচের দায়িত্বে থাকেন। তার অধীনে দুটি বুন্দেসলিগা, একটি জার্মান কাপ ও দুটি জার্মান সুপার কাপের শিরোপা জয় করে বরুশিয়া। আর ২০১২-১৩ মৌসুমে নিজেদের ক্লাব ইতিহাসে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়নস লীগের ফাইনালে উঠে তারা। কিন্তু চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বেয়ার্ন মিউনিখের কাছে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয়। তবে গত মৌসুমের শেষে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে যায় ক্লপের।

এ্যানফিল্ডের ক্লাবটিতে আসার পর বড় স্বপ্ন দেখাচ্ছেন না ক্লপ। তবে এই দল নিয়েই ধীরে ধীরে ভাল কিছু করতে চান। আশাবাদী ক্লপ বলেন, জয়টা সবসময়ই গুরুত্বপূর্ণ। তবে এ জন্য পরিকল্পনামাফিক খেলা ও অধ্যাবসায় জরুরী। আমরা এ লক্ষ্যেই কাজ শুরু করব। সাফল্যের সিঁড়ি বয়ে উঠতে সমর্থকদেরও পাশে চেয়েছেন ক্লপ। বলেন, আমি আশা করি সমর্থকরা আমাদের পাশে থাকবে। তাদের সঙ্গে আমাদের ভাল সম্পর্ক গড়ে উঠবে। সাফল্যের জন্য এটাও অত্যন্ত জরুরী।