২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

স্বরূপে ফিরছেন নাদাল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বাজে সময় কাটাচ্ছেন রাফায়েল নাদাল। ২০০৫ সালের পর এটাই প্রথম যে কোন গ্র্যান্ডসøাম জয় ছাড়াই বছর শেষ করতে যাচ্ছেন স্প্যানিশ এই টেনিস তারকা। তবে বছরের শেষমুহূর্তে এসে স্বরূপে ফেরার চেষ্টা করছেন তিনি। চায়না ওপেনে দারুণ জয়েই টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালের টিকেট নিশ্চিত করেন নাদাল। শুক্রবার কোয়ার্টার ফাইনালে টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক নাম্বার ওয়ান এই তারকা পরাজিত করেন আমেরিকার জ্যাক সককে। তবে জয়টা সহজে আসেনি তার। কঠিন লড়াইয়ের পর নাদাল ৩-৬, ৬-৪ এবং ৬-৩ গেমে পরাজিত করেন জ্যাক সককে।

এই জয়ের পর সন্তুষ্ট নাদাল। তাছাড়া এটাকে গুরুত্বপূর্ণ বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। এ বিষয়ে স্প্যানিয়ার্ডের অভিমত, ‘হ্যাঁ, এই জয়টা আমার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তবে এটা অস্বীকার করার কোন উপায় নেই যে যেভাবে শুরু করেছিলাম শেষটা তার চেয়েও অনেক ভালভাবে হয়েছে। তাছাড়া এটা আমার ফেরার সময় বলেও জেতাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। কেননা এই বছরে আমি অনেক বেশি হেরেছি। তাও আবার যখন প্রতিশোধ নেয়ার সুযোগ ছিল তখনও।’ গত এক বছরেরও বেশি সময় ধরে কোন হার্ডকোর্টের সেমিফাইনালে পৌঁছাতে পারেননি নাদাল। অবশেষে চায়না ওপেনে তা করে দেখালেন তিনি। তবে জয়ের সেই ধারাবাহিকতা কী ধরে রাখতে পারবেন বর্তমান র‌্যাঙ্কিংয়ের ৮ নাম্বারে থাকা এই স্প্যানিশ তারকা? সেটাই এখন ভক্ত-অনুরাগীদের দেখার অপেক্ষা।

নাদাল ছাড়াও এদিন জয়ের দেখা পেয়েছেন ইতালির ফ্যাবিও ফোগনিনি এবং ডেভিড ফেরার। ইতালিয়ান তারকা ফোগনিনি এদিন ৬-১, ২-৬ এবং ৬-২ গেমে হারান উরুগুয়ের পাবলো কিউভাসকে। আর নাদালের স্বদেশী ডেভিড ফেরার ৬-৩ এবং ৬-১ গেমে হারান তাইপের লু ইয়েন-হুনকে। সেমিফাইনালে ফোগনিনির প্রতিপক্ষ এখন রাফায়েল নাদাল।

ইউএস ওপেনের তৃতীয় রাউন্ডে এই নাদালকে হারিয়েই চমকে দিয়েছিলেন ফোগনিনি। যে কারণে এই লড়াইটাও বেশ কঠিন হবে বলে মানছেন টেনিসবোদ্ধারা। শুধু তাই নয়, নাদাল নিজেও প্রতিপক্ষকে বেশ কঠিন হিসেবে মানছেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সে তো অসাধারণ একজন খেলোয়াড়। আর এ রকম খেলোয়াড়দের বিপক্ষে আপনি যদি সেরাটা খেলতে না পারেন তাহলে খারাপ করার সম্ভাবনা থাকে। তার বিপক্ষে যদি আমার সেরাটা দিতে পারি তাহলেই কেবল জয়ের সম্ভাবনা থাকে।

আর যদি তা না হয়, তাহলে পারব না এটা খুবই স্বাভাবিক।’ শুক্রবার মহিলা এককে জয়ের দেখা পেয়েছেন আনা ইভানোভিচও। সার্বিয়ান তারকা শেষ আটে হারান রাশিয়ার এ্যানাস্তাসিয়া পাভলিউচেঙ্কোভাকে।