১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সলেটে প্রধান শিক্ষকের দুর্নীতি প্রমাণিত ॥ ব্যবস্থা নিতে টালবাহানা

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট অফিস ॥ দিরাই উপজেলার চরনারচর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মীনা বৈষ্ণবের অনিয়ম, দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হওয়ার পরও রহস্যজনক কারণে তার বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা না নেয়ায় নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হচ্ছে। এ ঘটনায় কেন ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হবে না- তা জানতে চেয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর সিলেট বিভাগীয় উপ-পরিচালকের কার্যালয় থেকে কারণ দর্শানোর নোটিস দেয়া হলেও তিনি সন্তোষজনক কোন জবাব দিতে পারেননি। এই পর্যায়ে পুনরায় এ ঘটনা তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে হবিগঞ্জ জেলা প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তাকে। এর আগে সুনামগঞ্জ জেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন দুর্নীতির বিষয় তদন্ত করে রিপোর্ট দাখিল করেন। দুর্নীতির মাধ্যমে দফতরি নিয়োগ, বিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও নানান অনিয়মের অভিযোগের ভিত্তিতে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর সিলেট বিভাগীয় উপ-পরিচালক তাহমিনা খাতুন সুনামগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে তদন্তের দায়িত্ব দেন। পরে তদন্তে মীনার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হয়। অভিযোগ, মীনা বৈষ্ণবের তদবিরের কারণে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পরও তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না নিয়ে এ ঘটনার পুনরায় তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।