১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শিল্পকলায় লালন উৎসব

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলার ভাব আন্দোলনের প্রাণপুরুষ ফকির লালন সাঁইজি। একইসঙ্গে তিনি গ্রামীণ জাগরণের প্রাতিস্বিক ব্যক্তিত্ব এবং বাংলার লোক-দর্শনের মহানায়ক। বাংলার মা ও মাটির দর্শনই বাউল তথা সাঁইজির দর্শন। বিশ্ব দরবারে বাংলার দর্শন দারিদ্র্য ঘুচিয়েছেন এই মহান সাধক। আগামী ১৭ অক্টোবর তাঁর ১২৫তম তিরোধান দিবস। এ উপলক্ষে ২২ অক্টোবর থেকে শিল্পকলা একাডেমির সঙ্গীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে দুই দিনব্যাপী লালন উৎসবের আয়োজন করেছে লালন রিসার্চ ফাউন্ডেশন। এ আয়োজনের লালনের গানের পরিবেশনার সঙ্গে তাঁর মানবতাবাদী দর্শন নিয়ে আলোচনা। এছাড়া একই সংগঠনের আয়োজনে আগামী ২০-২১ নবেম্বর শিল্পকলার উন্মুক্ত মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে দু’দিনের জাতীয় বাউল উৎসব। লালন উৎসব উপলক্ষে শনিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা বিশিষ্ট লালনসঙ্গীত শিল্পী ফরিদা পারভীন, খ্যাতনামা লালন গবেষক ড. আনোয়ারুল করিম, ফাউন্ডেশনের সভাপতি আবু ইসহাক হোসেন, সাধারণ সম্পাদক বি এম দুলাল প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা, উৎসবের পাশাপাশি জাতীয় জীবনে লালনের গুরুত্ব তুলে ধরে তিনটি দাবি উপস্থাপন করেন। এগুলো হলো প্রতিবছর জাতীয়ভাবে ফকির লালন শাহের তিরোধান দিবস উদ্্যাপন করতে হবে। লালনের দর্শনকে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্য তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করতে হবে এবং তাঁর নামে একটি পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করতে হবে। উৎসব কর্মসূচী প্রসঙ্গে জানানো হয়, দু’দিনই বেলা ৪টা থেকে শুরু হবে অনুষ্ঠান। প্রথম পর্বে লালনের মানবতাবাদী দর্শন নিয়ে আলোচনা করবেন বিশিষ্টনজরা। দ্বিতীয় পর্বে থাকবে লালনের গানের পরিবেশনা। উৎসবের প্রথম দিন ২২ অক্টোবর সন্ধ্যায় একক কণ্ঠে লালনসঙ্গীত পরিবেশন করবেন ফরিদা পারভীন। একইভাবে ২৩ অক্টোবর বৈকালিক আলোচনা শেষে সন্ধ্যায় শুরু হবে গানের পরিবেশনা। এদিন একক কণ্ঠে লালনের গান গাইবেন বিমান চন্দ্র বিশ্বাস এবং সমবেত পরিবেশনায় অংশ নেবে অচিন পাখি নামের সংগঠন।