২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সুন্দরগঞ্জে দ্বিধাবিভক্ত আওয়ামী লীগ

  • শিশু সৌরভকে গুলি

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা, ১০ অক্টোবর ॥ এমপি লিটনের ছোঁড়া গুলিতে দরিদ্র অসহায় শিশু সৌরভ আহত হওয়ার ঘটনায় সুন্দরগঞ্জ আওয়ামী লীগ এখন দু’ভাগে বিভক্ত হয়ে মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে। এরই ফলে সুন্দরগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল চত্বরে একইস্থানে লিটন সমর্থক অংশটি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা আহমেদের নেতৃত্বে এবং লিটনবিরোধী পৌর মেয়র আব্দুল্লাহ আল মামুন ও সাবেক সভাপতি টিআইএম মকবুল হোসেন প্রামাণিকের নেতৃত্বাধীন অংশটি একই ইস্যুতে একই সময়ে সভা আহ্বান করে। জাতিসংঘের ‘চ্যাম্পিয়ন্স অব দ্য আর্থ’ সম্মাননা পাওয়ায় শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে উভয় গ্রুপ রবিবার একইস্থানে সভা আহ্বান করায় চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। উভয় গ্রুপ রবিবার সভা করতে অনড় থাকায় প্রশাসন সভাস্থলে ১৪৪ ধারা জারি করার সিদ্ধান্ত নেয়।

তবে উপজেলা প্রশাসনের তৎপরতায় এ বিরোধ নিষ্পত্তি হয়। যেহেতু লিটনবিরোধী গ্রুপটি সুন্দরগঞ্জ পৌরসভার উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘চ্যাম্পিয়ন্স অব দ্য আর্থ’ সম্মাননার জন্য অভিনন্দন জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সে কারণে একপর্যায়ে লিটন সমর্থিত গ্রুপটি বিরোধিতা থেকে সরে আসে এবং তারা সোমবার একই স্থানে শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানানোর কর্মসূচী পালনের সিদ্ধান্ত নেয়। তবে সুন্দরগঞ্জ পৌরসভা যথারীতি রবিবার বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল চত্বরে পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচীটি পালন করবে।

সুন্দরগঞ্জে আওয়ামী লীগের একনিষ্ঠ নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সুন্দরগঞ্জে এমপি লিটনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের মধ্যে যে দ্বিধাবিভক্তি পরিলক্ষিত হচ্ছে, তা দ্রুত নিষ্পত্তি না হলে আওয়ামী লীগ ক্ষতিগ্রস্ত হবে। এতে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করে লাভবান হবে স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত-শিবির চক্রটি। তারা মনে করেন, এমপি লিটনের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে মামলা দায়ের হয়েছে। সুতরাং তার বিরুদ্ধে আইনগতভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহণের কথা প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যথারীতি জানিয়েও দিয়েছেন। এরপর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রতি সম্মান জানানোই সকলের উচিত বলে তারা মনে করেন।

এদিকে মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন এমপি তার গাড়িতে হামলাসহ হত্যা চেষ্টার অভিযোগে সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি এজাহার করেছেন। তিনি ঢাকায় অবস্থান করায় তার প্রতিনিধি তরিকুল ইসলামকে দিয়ে এজাহারের কপিটি থানায় পৌঁছান।

সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসরাইল হোসেন এমপির ওই এজাহার পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, তাঁর এজাহারে অভিযোগের বিষয় তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শুক্রবার এমপি লিটনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, গত ২ অক্টোবর আমার ওপর হামলার ঘটনায় আমি গত ৬ অক্টোবর লোক মারফত সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি এজাহার পাঠিয়েছি। পুলিশ আমাকে বলেছে, তারা আমার দেয়া এজাহারের অভিযোগ তদন্ত করে দেখছে।

গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য মোঃ মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের ছোঁড়া গুলিতে ২ অক্টোবর ভোরে সৌরভ মিয়া (৯) নামে এক শিশু গুরুতর আহত হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় সৌরভ রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।