২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রূপগঞ্জে পোশাক কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষ

  • বকেয়া বেতন দাবি

নিজস্ব সংবাদদাতা, রূপগঞ্জ, ১০ অক্টোবর ॥ বকেয়া বেতন-ভাতার দাবি ও কারখানা বন্ধের প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার বরাব এলাকায় একটি রফতানিমুখী পোশাক কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। উত্তেজিত শ্রমিকরা কারখানার সামনে দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল করেছেন। শনিবার বেলা ১১টার দিকে কেএলডি এ্যাপারেলস লিমিটেড নামে পোশাক কারখানার শ্রমিকদের মাঝে এ অসন্তোষ দেখা দেয়। বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা কোন প্রকার সমাধান না পেয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীরপ্রতীক)-এর কাছে ওই পোশাক কারখানার মালিক পক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

শ্রমিকরা জানান, কেএলডি এ্যাপারেলস লিমিটেড নামে পোশাক কারখানায় প্রায় ৩শ’ শ্রমিক কাজ করেন। গত আগস্ট ও সেপ্টেম্বর মাসের বেতন-ভাতা বকেয়া পড়ে যায়। ঈদের আগে তাদের বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশোধ করার কথা থাকলেও মালিকপক্ষ তা পরিশোধ করেননি। এতে অধিকাংশ শ্রমিকই ঈদে গ্রামের বাড়ি যেতে পারেনি। এছাড়া খেয়ে না খেয়ে অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছেন। এছাড়া কোন প্রকার নোটিস ছাড়াই ঈদের পর থেকে কারখানা বন্ধ করে দেয়া হয়। শনিবার সকালে শ্রমিকরা পোশাক কারখানার সামনে অবস্থান নেন। এরপর দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করে মালিকপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে যোগাযোগ করতে না পেরে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শ্রমিকরা উত্তেজিত হয়ে উঠেন। এ সময় মালিকপক্ষের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরু করেন। কোন প্রকার সমাধান না পেয়ে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা রূপসীর বাসায় গিয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীরপ্রতীক)-এর কাছে ওই পোশাক কারখানার মালিকপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। এ সময় সংসদ সদস্য শ্রমিকদের বকেয়া-বেতন ভাতা পরিশোধের বিষয়ে মালিকপক্ষের সঙ্গে কথা বলবেন বলে আশ্বস্ত করেন। এতে শ্রমিকরা শান্ত হয়ে ফিরে যান। শ্রমিক বাবলু মিয়া, কালাম মিয়া, রাব্বি আহাম্মেদ, শামিম মিয়া, হাজেরা খাতুন, জিয়াসমিন আক্তার, শিউলি আক্তার, রোকসানা আক্তারসহ আরও অনেকেই অভিযোগ করে জানান, ঈদের আগে বকেয়া বেতন-ভাতার আন্দোলন করতে গেলে পুলিশ তাদের লাঠিপেটা করেন। বর্তমানে তারা খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাচ্ছেন। গ্রামের বাড়িতে ফিরে যাওয়ার গাড়ি ভাড়া পর্যন্ত তাদের কাছে নেই। এছাড়া বাড়িওয়ালা ও মুদি মনোহরী দোকানীদের অব্যাহত চাপের মুখে শ্রমিকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে। দাবিকৃত বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশোধ করা না হলে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধসহ আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন শ্রমিকরা। এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল ইসলাম বলেন, শ্রমিকদের দাবি-দাওয়ার বিষয়টি মালিকপক্ষের সঙ্গে কথা বলা হয়েছে।